kalerkantho

শুক্রবার  । ১৮ অক্টোবর ২০১৯। ২ কাতির্ক ১৪২৬। ১৮ সফর ১৪৪১              

নলছিটিতে হত্যা মামলার আসামির হাত-পা কাটা লাশ উদ্ধার

ঝালকাঠি প্রতিনিধি   

২৩ মার্চ, ২০১৯ ২১:০৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নলছিটিতে হত্যা মামলার আসামির হাত-পা কাটা লাশ উদ্ধার

ঝালকাঠির নলছিটিতে ছাত্রলীগকর্মী সজল হাওলাদার হত্যা মামলার প্রধান আসামি সাইদুল ইসলাম তালুকদারের হাত-পা কাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আজ শনিবার বিকেলে উপজেলার নাচনমহল বাজার সংলগ্ন এলাকা থেকে তাঁর লাশ উদ্ধার করা হয়। সাইদুলকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে লাশ ফেলে রাখা হয়েছে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মোল্লারহাট ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেনকে আটক করেছে।

২০১৬ সালের ৩ জুলাই বরিশাল বিএম কলেজের ছাত্র ও মোল্লারহাট ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কর্মী সজল হাওলাদারকে গুলি করে হত্যা করা হয়। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে বিরোধের জেরে তাকে হত্যা করা হয়েছিল।

পুলিশ জানায়, শনিবার বিকেলে নাচনমহল বাজারের দক্ষিণ পাশে সাইদুলের হাত পা কাটা লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। পুলিশ গিয়ে বিকেল সাড়ে চারটায় লাশ উদ্ধার করে। সাইদুল ইসলাম তালুকদার নাচনমহল গ্রামের আবদুল আজিজ তালুকদারের ছেলে। সজল হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে জেল হাজতে ছিল সাইদুল। জামিনে মুক্তি পেয়ে সে সম্প্রতি এলাকায় ফিরে আসে।

সাইদুলের বাড় বোন আকলিমা বেগম বলেন, গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমার ভাই মোল্লারহাট ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেনের সঙ্গে ছিল। এ কারণেই সজল হত্যা মামলায় আসামি হয়েছে। বর্তমানে চেয়ারম্যান কবিরের সঙ্গে তার বিরোধ দেখা দেয়। কবিরের লোকজনই আমার ভাইকে হত্যা করেছে। 

নিহতের বাবা আবদুল আজিজ তালুকদার মুঠোফেনে বলেন, আমার ছেলে কবির চেয়ারম্যানের লোক হিসেবে পরিচিত ছিল। কবিরের সঙ্গে থাকায় আমার ছেলে নানা সমস্যায় পড়ছিল। আমি তাকে কবিরের সঙ্গ ছাড়তে বলেছি। বর্তমানে কবিরের সঙ্গে যোগাযোগ না রাখায় ক্ষিপ্ত হয়ে তার লোকজনই আমার ছেলেকে হত্যা করেছে। 

নলছিটি থানার ওসি মো. সাখাওয়াত হোসেন বলেন, সাইদুল হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মোল্লারহাট ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেনকে আটক করা হয়েছে। এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা