kalerkantho

রবিবার । ২০ অক্টোবর ২০১৯। ৪ কাতির্ক ১৪২৬। ২০ সফর ১৪৪১                

'সেভ দ্য ন্যাচার' জাবি শাখার বিশ্ব পানি দিবস পালিত

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি    

২২ মার্চ, ২০১৯ ২০:০৬ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



'সেভ দ্য ন্যাচার' জাবি শাখার বিশ্ব পানি দিবস পালিত

'সেভ দ্য ন্যাচার অব বাংলাদেশ' জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) শাখার উদ্যোগে 'বিশ্ব পানি দিবস-২০১৯' পালিত হয়েছে।

আজ শুক্রবার (২২ মার্চ) সকাল ১০টায় বিশ্ব পানি দিবস-২০১৯ উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ও মানবিক অনুষদের দ্বিতীয় তলায় আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ও বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলের প্রাধ্যক্ষ ড. মো. আবদুল্লাহ হেল কাফি। প্রধান আলোচক ছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. কবিরুল বাশার।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই 'সেভ দ্য ন্যাচার অব বাংলাদেশ' জাবি শাখার পক্ষ থেকে প্রধান আলোচককে ফুল ও ক্রেস্ট দিয়ে বরণ করে নেন জাবি শাখার সভাপতি তৌফিক আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল আজিম সৈকত।

পানি দিবসের আলোচনায় অধ্যাপক ড. কবিরুল বাশার বলেন, 'পানি ছাড়া পৃথিবীতে বেঁচে থাকা একেবারেই অসম্ভব। আমাদের জীবন ও জীবিকার প্রতিটি ক্ষেত্রেই পানির গুরুত্ব অপরিসীম, তাই পানির সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনায় সবাইকে সচেতন হতে হবে।' অনুষ্ঠানে তাঁর ব্যক্তিগত জীবনের গবেষণা ও বাস্তব অভিজ্ঞতা নিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে তথ্যমূলক আলোচনা করেন তিনি। এ ছাড়া অনুষ্ঠানের প্রশ্নোত্তর পর্বে শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

'সেভ দ্য ন্যাচার অব বাংলাদেশ' জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি তৌফিক আহমেদ বলেন, 'পৃথিবীর শতকরা ৭০% পানি, যার মধ্যে মাত্র ২.৫০% ব্যবহার উপযোগী। এর মধ্যে মাত্র ১% পানি সহজলভ্য। বর্তমানে পৃথিবীতে প্রায় ৭৫ কোটি মানুষ নিরাপদ পানি থেকে বঞ্চিত যা ২০২৫ সালের মধ্যে ১৮০ কোটি ছাড়িয়ে যাবে বলে ধারণা করা হয়।

গত ৪০ বছরে ঢাকা শহরে ভূগর্ভস্থ পানির স্তর নেমে গেছে ৫৫ মিটার যা আগামীতে আরো ভয়াবহ আকার ধারণ করবে।' তিনি বলেন, 'প্রতিদিন আমরা দাঁত ব্রাশ করতে প্রায় ১২ লিটার এবং গোসল করতে প্রায় ৯০ লিটার পানি খরচ করি অথচ বিশ্বের অনেক দেশ শুধুমাত্র এইটুকু পানি ছাড়াই জীবনযাপন করছে।

তৌফিক আহমেদ আরো বলেন, পানির অপর নাম জীবন কিন্তু এই পানিই আবার মৃত্যুর কারণ যখন তা দূষিত হয়। শুধুমাত্র পরিষ্কার পানি ব্যবহারের মাধ্যমে এবং পানির সুষ্ঠু ব্যবহারের মাধ্যমেই আমরা আমাদের পরবর্তী প্রজন্মের জন্য এই সম্পদ রেখে যেত পারি।'

এ সময় সবার উদ্দেশ্যে তৌফিক আহমেদ বলেন, 'আসুন আমরা সচেতন হই এবং সমাজের সকল স্তরে পানির সুষ্ঠু ব্যবহার নিশ্চিত করি।'

আলোচনারসভায় আরো উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সহ-সভাপতি সৈয়দ সিফাত, সানজিদা নাহার এবং সংগঠনের সদস্যরা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সহ-সভাপতি সামিন ইয়াসির সাফিন। আলোচনার সভার সমন্বয়কারী হিসেবে ছিলেন সেভ দ্য ন্যাচার জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি ফিরোজ মাহমুদ সরকার এবং অগ্রদ্বীপ ঘোষ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা