kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

জুড়ীতে দেবরের কাছে ভাবির পরাজয়, জামানত বাজেয়াপ্ত

বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি   

২০ মার্চ, ২০১৯ ০০:০৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জুড়ীতে দেবরের কাছে ভাবির পরাজয়, জামানত বাজেয়াপ্ত

ছবি: কালের কণ্ঠ

মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বর্তমান চেয়ারম্যান, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী গুলশান আরা মিলিকে শোচনীয়ভাবে পরাজিত করে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হল্যান্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা এম এ মোঈদ ফারুক। 

সম্পর্কে এরা আপন দেবর-ভাবী। ভাবীর অবস্থান তৃতীয়। এম এ মোঈদ ফারুক জুড়ী উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মৃত এম এ মুমীত আসুকের ছোট ভাই। 

অন্যদিকে গুলশান আরা মিলি এম এ মুমীত আসুকের স্ত্রী। মিলি উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এম এ মোঈদ ফারুক আনারস প্রতীকে ২৫ হাজার ২৮২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের অপর বিদ্রোহী প্রার্থী কিশোর রায় চৌধুরী মনি ঘোড়া প্রতীকে পেয়েছেন ২০ হাজার ৬৬ ভোট। 

অন্যদিকে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী গুলশান আরা মিলি নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৫ হাজার ৭৭৬টি ভোট। মোট কাস্টিং ভোটের ৮ ভাগের ১ ভাগের নিচে হওয়ায় জামানত হারাতে হলো ভাবীকে।  

এবার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জুড়ী উপজেলায় দেবর ও ভাবিসহ তিনজন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা