kalerkantho

বুধবার । ১৬ অক্টোবর ২০১৯। ১ কাতির্ক ১৪২৬। ১৬ সফর ১৪৪১       

দৌলতপুর ইউএনওর হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে বন্ধ

শিবালয় (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৫:৪৯ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



দৌলতপুর ইউএনওর হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে বন্ধ

মানিকগঞ্জের দৌলতপুর ইউএনওর হস্তক্ষেপে নবম শ্রেণির এক ছাত্রী বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেয়েছে। গত শুক্রবার  রাতে দৌলতপুর কলোনি পাড়ার ওমর ফারুকের স্কুলপড়ুয়া মেয়ের সঙ্গে টাঙ্গাইল জেলার নাগরপুর উপজেলার গয়হাটা গ্রামের সুমন (২৮) সাথে বিয়ের আয়োজন করা হয়। মেয়েটি স্থানীয় দৌলতপুর পিএস সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী।

দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাবরিনা শারমিন জানান, উপজেলার দৌলতপুর গ্রামে বাল্যবিয়ে হচ্ছে এমন খবর পেয়ে দৌলতপুর থানার এসআই করিমসহ থানা পুলিশ অভিযান পরিচালনা করি। বিয়েবাড়ি থেকে  মেয়ের বাবা ওমর ফারুক ও মেয়ের চাচা ছিবাতুল্লাহকে আটক করা হয়। পরে বিয়ে ভেঙে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলে ওই ওয়ার্ডের মেম্বার আব্দুল মান্নান মিন্টু ও পার্শ্ববর্তী সমেতপুর ওয়ার্ডের মেম্বার টুনা শেখের জিম্মায় মেয়ের বাবা ওমর ফারুক, চাচা ছিবাতুল্লাহ ও মেয়েকে মুচলেকার মাধ্যমে ছেড়ে দেওয়া হয়। মুচলেকায় ১৮ বছরের আগে বিয়ে দিতে পারবে না- এমন প্রতিশ্রুতি দেওয়া আছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা