kalerkantho

মঙ্গলবার । ২২ অক্টোবর ২০১৯। ৬ কাতির্ক ১৪২৬। ২২ সফর ১৪৪১              

গৃহবধূর আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে চাঁদা দাবির অভিযোগে যুবক আটক

শরীয়তপুর প্রতিনিধি    

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৯:২৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গৃহবধূর আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে চাঁদা দাবির অভিযোগে যুবক আটক

শরীয়তপুরের নড়িয়ায় এক প্রবাসীর স্ত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে চাঁদা দাবির অভিযোগে এক যুবককে আটক করেছে র‌্যাব। আজ শুক্রবার (২২ ফেব্রুয়ারি) ভোর ৬টার দিকে উপজেলার পাঁচগাঁও গ্রাম থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটক মো. সেলিম হাওলাদার (২৫) উপজেলার কেদারপুর ইউনিয়নের পাঁচগাঁও গ্রামের মৃত মতিউর রহমান হাওলাদারের ছেলে।

র‌্যাব ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মো. সেলিম হাওলাদার নড়িয়া উপজেলার চণ্ডিপুর এলাকার এক প্রবাসীর স্ত্রীকে ফুঁসলিয়ে গোপনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে তার সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন। পরে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের দৃশ্য কৌশলে মোবাইলে ধারণ করেন। আপত্তিকর দৃশ্য অনলাইনে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ওই প্রবাসীর স্ত্রীর কাছ থেকে কয়েক দফায় মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেন সেলিম। এক সপ্তাহ আগে আপত্তিকর ভিডিও'র মেমোরি কার্ড প্রবাসীর স্ত্রীর পরিবারের কাছে সরবরাহ করে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন।

এ ঘটনায় ওই প্রবাসী স্ত্রীর পরিবার আইনি সহায়তা চেয়ে র‌্যাব-৮ মাদারীপুর ক্যাম্পের নিকট লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে র‌্যাবের একটি দল নড়িয়া উপজেলার পাঁচগাঁও এলাকায় অভিযান চালিয়ে ওই যুবককে আটক করে।

র‌্যাব-৮ (সিপিসি-৩) মাদারীপুর ক্যাম্পের কম্পানি  অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার  মো. রইছ উদ্দিন বলেন, গৃহবধূর স্বামী প্রবাসে থাকার সুযোগে আটক বখাটে আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে চাঁদা দাবি করেন। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ পরিবার আইনি সহায়তা চায়। পরে অভিযান চালিয়ে বখাটে সেলিমকে আটক করা হয়।

তিনি বলেন, সেলিমকে আটককের পর তার কাছ থেকে আপত্তিকর ভিডিও ও ছবি সম্বলিত মোবাইল ও মেমোরি কার্ড জব্দ করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অভিযোগের বিষয়ে সত্যতা স্বীকার করেছেন সেলিম। তাকে নড়িয়া থানায় হস্তান্তর করা হবে বলে জানান ওই র‍্যাব কর্মকর্তা। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা