kalerkantho

মঙ্গলবার । ২২ অক্টোবর ২০১৯। ৬ কাতির্ক ১৪২৬। ২২ সফর ১৪৪১              

পিরোজপুরে যুবলীগ কর্মী আশিষ হত্যা

আসামিরা এখনো গ্রেপ্তার হয়নি

পিরোজপুর প্রতিনিধি   

২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০২:৫৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আসামিরা এখনো গ্রেপ্তার হয়নি

পিরোজপুরে কলাখালীতে যুবলীগকর্মী মো. সাকিল আহমেদ আশিষ হত্যার পর দেড় মাসেও মূল আসামিরা গ্রেপ্তার হয়নি। এদিকে উল্টো আসামিপক্ষের লোকজন নিহত আশিষের স্ত্রী ও মামলার বাদীকে মামলা তুলে নিতে বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছে।

নিহত আশিষের স্ত্রী সাবরিনা বেগম বলেন, ‘আমার স্বামীকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। যে গেছে, তাকে আর ফিরে পাব না। আমার দুটি শিশু। তাদের নিয়ে খুবই বিপদে আছি। আমি ন্যায়বিচার চাই। ১৬ জন আসামির মধ্যে তিন আসামি আদালতে আত্মসমর্পণ করলেও আসল অপরাধীদের কেউ গ্রেপ্তার হয়নি। বরং সাক্ষীসহ আমাদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। কথা ছিল আমার স্বামী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি হবেন। এ ছাড়া গত জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শ ম রেজাউল করিমের পক্ষে নির্বাচনী এজেন্ট হওয়ার কারণে কারো ক্ষোভ থাকতে পারে।’

এ ব্যাপারে পিরোজপুর সদর থানার ওসি এস এম জিয়াউল হক বলেন, ‘মামলাটি সিআইডির কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। আশা করছি, শিগগিরই মামলার রহস্য উদঘাটন করে আসামিদের গ্রেপ্তার করা সম্ভব হবে।’

উল্লেখ্য, পিরোজপুর জেলা জজ আদালতে জয় হত্যা মামলায় হাজিরা শেষে বাড়ি ফেরার পথে গত ৩ জানুয়ারি দুপুরে ১০-১৫ জন সন্ত্রাসী আশিষকে কুপিয়ে জখম করে। পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিত্সাধীন অবস্থায় বিকেলে তাঁর মৃত্যু হয়। নিহত আশিষ সদর উপজেলার কলাখালী ইউনিয়নের দাউদপুর গ্রামের মৃত মোকছেদ আলী হাওলাদারের ছেলে। তিনি ওই ইউনিয়ন যুবলীগের কর্মী ছিলেন। এ ঘটনায় ৬ জানুয়ারি আশিষের স্ত্রী বাদী হয়ে পিরোজপুর সদর থানায় মামলা করেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা