kalerkantho

শুক্রবার  । ১৮ অক্টোবর ২০১৯। ২ কাতির্ক ১৪২৬। ১৮ সফর ১৪৪১              

বউয়ের সঙ্গে ঝগড়া করে নিজ বসত ঘরে আগুন

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৬:৫২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বউয়ের সঙ্গে ঝগড়া করে নিজ বসত ঘরে আগুন

ছবি : কালের কণ্ঠ

রাত তখন প্রায় ১২টা। স্বামী বাড়িতে এসে প্রথমে বউয়ের সঙ্গে ঝগড়া, তারপর মারধর ও আসবাবপত্র ভাংচুর। তাতেও রাগ পড়েনি। একপর্যায় ক্রুদ্ধ হয়ে ঘরের মধ্যে স্ত্রী ও চার সন্তানকে রেখেই নিজের বসত ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয় খোকন হাওলাদার। স্ত্রী রোজিনা বেগম চার সন্তানকে নিয়ে বের হলেও বসত ঘরটি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার দিনগত রাত ১২টার দিকে বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের দক্ষিণ তাফালবাড়ি গ্রামে। 

স্ত্রী রোজিনা বেগম সন্তানদের নিয়ে একই গ্রামে তার বাবা রুস্তম আলী ফরাজীর বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন। স্বামী মো. খোকন হাওলাদার ঘরে আগুন দিয়ে পালিয়ে গেছে। সেই থেকে আর বাড়িতে আসেনি।

রোজিনা বেগম জানান, তার স্বামী রাত ১২টার দিকে বাড়িতে এসেই তাকে গালাগালি এবং মারধর শুরু করে। রাগের চোটে ঘরের সমস্ত মালামাল পিটিয়ে ভেঙে ফেলে। পরে ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়। গোলপাতার ছাউনির কাঠের ঘরটি মুহূর্তের মধ্যে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। আশপাশের লোকজন এসে আগুন নেভানোর চেষ্টা করেছে। কিন্তু রক্ষা হয়নি। সেই থেকে স্বামীর কোনো খোঁজ নেই। অভাবের সংসারে এ অবস্থায় চার সন্তান নিয়ে কোথায় থাকবেন কির করবেন কিছুই ভেবে পাচ্ছেন না। 

প্রতিবেশী আনোয়ার পহলান, পিয়ারা বেগম ও আলামীন পহলান জানান, রাতে তারা ভাঙচুরের শব্দ শুনতে পেয়েছেন। পরবর্তীতে রোজিনা আগুন আগুন বলে চিৎকার করলে তারা সেখানে ছুঁটে যান। প্রতিবেশীরা অনেকেই এসে আগুন নেভানোর চেষ্টা করলেও ঘরটি রক্ষা করা যায়নি। স্বামী তাকে এভাবে প্রাই সামান্য বিষয় নিয়ে মারধর করে বলে তারা অভিযোগ করেন।

এ ব্যাপারে সাউথখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মোজাম্মেল হোসেন অসহায় পরিবারটিকে সহায়তার আশ্বাস দিয়ে বলেন, নিজ ঘরে অগ্নিসংযোগকারী খোকনকে খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা