kalerkantho

শুক্রবার । ২২ নভেম্বর ২০১৯। ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

একদিনে উদ্ধার ৫ লাখ ৬০ হাজার পিছ ইয়াবা

আত্মসমর্পণ প্রক্রিয়ার মাঝেও থেমে নেই ইয়াবা পাচার

কক্সবাজার ও টেকনাফ প্রতিনিধি   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২২:৫২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আত্মসমর্পণ প্রক্রিয়ার মাঝেও থেমে নেই ইয়াবা পাচার

ছবি: কালের কণ্ঠ

কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্তে শীর্ষ ইয়াবা কারবারিদের আত্মসমর্পণ প্রক্রিয়ার মাঝেও থেমে নেই ইয়াবা পাচার। আত্মসমর্পণের একদিন আগেই আজ শুক্রবার কক্সবাজারের টেকনাফে র‌্যাব ও বিজিবি এবং বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে বিজিবির পৃথক অভিযানে ৫ লাখ ৬০ হাজার পিছ ইয়াবার তিনটি চালান জব্দ করা হয়েছে। 

নাইক্ষ্যংছড়ি ১১ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল আছাদুদজামান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পার্শ্ববর্তী রামুর কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের হাজী পাড়ায় একটি খামার বাড়িতে ১১ বিজিবির বিশেষ টহল দল একটি অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় পরিত্যক্ত অবস্থায় ৪ লাখ ৪০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

তিনি জানান, ইয়াবার চালানটি নাইক্ষ্যংছড়ি ও রামু পূর্বাঞ্চল থেকে উদ্ধারকৃত সর্ববৃহৎ ইয়াবার চালান। উদ্ধার হওয়া ইয়াবা ট্যাবলেটের আনুমানিক মূল্য ১৩ কোটি ২০ লাখ টাকা।

এদিকে একই দিন সদ্য গঠিত কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ একটি টীম টেকনাফের অদূরে বঙ্গোপসাগরে অভিযান চালিয়ে ইয়াবার একটি বড় চালান আটক করতে সক্ষম হয়।

কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর অধিনায়ক মেজর মেহেদী হাসান বলেন, ‘সাগর পথে ইয়াবার বড় চালান পাচারের গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বঙ্গোপসাগরের অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় ট্রলারে করে ইয়াবার চালান পাচারের সময় এক লাখ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও চার মিয়ানমার নাগরিককে আটক করা হয়। ওই সময় ইয়াবা পাচারে ব্যবহৃত ট্রলারটিও জব্দ করা হয়। আটকৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানিয়েছে, চালানটি টেকনাফ উপকূলে খালাস করার উদ্দেশে আনা হচ্ছিল।’

আত্মতৃপ্তিতে না ভোগে দেশে ইয়াবার পাচার রোধ করতে র‌্যাব ১৫ এর মাদক বিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

অপরদিকে টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের খারাংখালীতে বিজিবির একটি অভিযানে ২০ হাজার পিছ ইয়াবার একটি চালান আটক করা হয়েছে। টেকনাফস্থ ২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল আছাদুদজামান চৌধুরী বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্তের শীর্ষ ইয়াবা গডফাদারসহ প্রায় দেড় শ ইয়াবা কারাবারির আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানের আগের দিন ইয়াবা বড় চালান আটকের ঘটনায় সর্বত্র তোলপাড় চলছে। আত্মসমর্পণ প্রক্রিয়ার মাঝে ইয়াবা পাচার রোধ করা সম্ভব হবে কিনা এ বিষয়ে অনেকে সন্দিহান প্রকাশ করছে।

প্রসঙ্গত, শনিবার টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সীমান্তের ইয়াবা কারবারিদের আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এতে ইয়াবা কারবারিরা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের হাতে প্রতীকী ইয়াবা জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করবেন বলে জানা যায়। অনুষ্ঠানটিতে বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারীসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকবেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা