kalerkantho

শরণখোলায় অবৈধ দখল উচ্ছেদ

অভিযানের আগেই স্থাপনা সরিয়ে নিচ্ছে দখলকারীরা

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি   

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৬:৪৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অভিযানের আগেই স্থাপনা সরিয়ে নিচ্ছে দখলকারীরা

বাগেরহাটের শরণখোলায় আঞ্চলিক মহাসড়রে দুই পাশের অবৈধ দখলকারীরা নিজ উদ্যোগে সরিয়ে নিচ্ছেন তাদের স্থাপন। আজ সোমবার সড়ক ও জনপথ বিভাগের উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনার কথা ছিল। কিন্তু, উচ্ছেদের নোটিশ পেয়ে গত শনিবার থেকেই নিজ উদ্যোগে তাদের স্থাপনাগুলো ভাঙতে শুরু করেন। 

জেলা সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের গণ-বিজ্ঞপ্তি সূত্রে জানা যায়, সাইনবোর্ড-মোরেলগঞ্জ-রায়েন্দা-শরণখোলা-বগী (আর-৭৭৩) আঞ্চলিক মহাসড়কের ১১তম কিলোমিটারের মোরেলগঞ্জের আমতলা বাজার থেকে শরণখোলার ৩৯তম কিলোমিটারের রায়েন্দা পাঁচরাস্তা মোড় পর্যন্ত সড়কের দুই পাশের অবৈধ দখল উচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেয় সওজ। এর আলোকে উচ্ছেদেরর আওতাভুক্ত এলাকায় আগে থেকে গণ-বিজ্ঞপ্তি টাঙিয়ে দেয় কর্তৃপক্ষ। সোমবার শরণখোলা অংশে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনার কথা। কিন্তু এর আগেই আমড়াগাছিয়া, রায়েন্দা বাসস্ট্যান্ড ও পাঁচরাস্তা মোড়ের দখলকারীরা তাদের সকল কাচা-পাকা স্থাপনা সরিয়ে নিতে থাকে। 

উচ্ছেদের ব্যাপারে রায়েন্দা ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জালাল আহমেদ রুমী বলেন, আমার পাঁচরাস্তা মোড়ে সড়কের পাশে কয়েকটি কাচা ঘর ছিলো, উচ্ছেদ নোটিশ পেয়েই তা সরিয়ে নিয়েছি। 
সরকারের এই মহতি উদ্যাগকে স্বাগত জানিয়ে তিনি বলেন, আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে পাঁচরাস্তা মোড়ের সকলেই নিজ উদ্যোগে অভিযানের আগেই তাদের কাচা-পাকা ঘর ভেঙে নিচ্ছে। 

শরণখোলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিংকন বিশ্বাস বলেন, মোরেলগঞ্জ অংশ থেকে উচ্ছেদ শুরু হয়েছে। আজ আমাদের এখানে ভাঙার কথা। এর আগেই অবৈধ দখলদাররা তাদের বেশিরভাগ স্থাপনা সরিয়ে নিয়েছে। সওজ কর্তৃপক্ষ তাদের সীমানা নির্ধারণ করলে বাকিটায় অভিযান চালানো হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা