kalerkantho

রবিবার । ২ অক্টোবর ২০২২ । ১৭ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

লোহাগড়ায় আত্মীয়-স্বজন নিয়ে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানের মানববন্ধন

স্ত্রীর বেপরোয়া জীবনযাপনে আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি   

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৭:৩৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্ত্রীর বেপরোয়া জীবনযাপনে আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি

নড়াইলের লোহাগড়ায় মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মো. আমিনুর ইসলাম স্ত্রীসহ তার সহযোগীদের মিথ্যা ও হয়রানিমূলক মামলা থেকে রেহাই দিতে মানববন্ধন করেছেন। আজ রবিবার বেলা সাড়ে ১১টায় লোহাগড়া বাজার সড়কে মানববন্ধন করেন তারা। আমিনুরের পিতা পোদ্দারপাড়া গ্রামের প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা নূর ইসলাম।   

ভুক্তভোগী আমিনুরসহ তার আত্মীয়রা জানান, গত বছর ২৫ জুন আমিনুর ইসলাম লোহাগড়া বাজারের ফয়েজমোড় এলাকার আফিয়া খানম লিমাকে বিয়ে করেন।

বিজ্ঞাপন

সংসার চলাকালে লিমা গর্ভবতী হয়ে পড়েন এবং অন্যত্র পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে যান। গত বছর ১৯ নভেম্বর কয়েকজনের সহযেগিতায় গর্ভের সন্তান নষ্ট করার চেষ্টা চালান তিনি। এ কাজে বাধা দেয়ায় লিমা তার সহযোগীদের দিয়ে স্বামীকে অপহরণ করিয়ে আটকে রাখেন।  

আমিনুর জানান, গত বছর ২৮ নভেম্বর আমার পরিবার খবর পেয়ে আমাকে বন্দিদশা থেকে মুক্ত করে আনে। পরবর্তিতে লিমা গর্ভের সন্তান নষ্ট করে দেয়। এ বিষয়ে আমি নড়াইলের পুলিশ সুপারের নিকট অভিযোগ দায়ের করি। গত বছরের ১০ ডিসেম্বর পুলিশ সুপার লোহাগড়া থানার ওসিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। কিন্তু আমি লোহাগড়া থানা পুলিশের কোনো সহযোগিতা পাইনি। বরং লিমা আমার বিরুদ্ধে থানায় মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করায় আমি নানাভাবে হয়রানির শিকার হচ্ছি। স্ত্রীর বেপরোয়া জীবনযাপনের কারণে আমার জীবন সংকটে পড়েছে। আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।  

ভুক্তভোগী পরিবারের এ মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন পোদ্দারপাড়ার কামাল হোসেন, আবুজার, ছাতড়া গ্রামের আকাশ, মানিক, আরিফসহ বিভিন্ন গ্রামের শতাধিক লোক। লোহাগড়া থানার ওসি প্রবীর কুমার বিশ্বাস জানান, অভিযোগ তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। পুলিশ নিরপেক্ষ আছে এবং থাকবে।



সাতদিনের সেরা