kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৪ অক্টোবর ২০১৯। ৮ কাতির্ক ১৪২৬। ২৪ সফর ১৪৪১       

অপহরণের পাঁচ দিন পরও উদ্ধার হননি হারেজ

পাঁচবিবি (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি    

১৮ জানুয়ারি, ২০১৯ ১৮:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অপহরণের পাঁচ দিন পরও উদ্ধার হননি হারেজ

অপহরণের পাঁচ দিন পরও জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে পুলিশ উদ্ধার করতে পারেনি বৃদ্ধ হারেজ উদ্দিনকে (৭০)। তাঁর ছেলে মিজানুর রহমান এ ব্যাপারে থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

অপহৃত হারেজ উপজেলার কুসুম্বা ইউনিয়নের বাশখুর গ্রামের মৃত শামসুদ্দিনের ছেলে। 

পুলিশের দাবি, হারেজ উদ্দিনকে উদ্ধারে পুলিশ তৎপর।

অপহৃতের পরিবার ও থানা সূত্রে জানা যায়, গত ১৪ জানুয়ারি সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে বের হয়ে আধা কিলোমিটার দূরে পাহারা দিতে মাঠে অবস্থিত গভীর নলকূপের ঘরে যান হারেজ উদ্দিন। পরের দিন ১৫ জানুয়ারি সকালে ছেলে মিজানুর রহমান মাঠে গিয়ে গভীর নুলকূপের ঘরের দরজা তালাবদ্ধ দেখতে পান। বৃদ্ধ বাবা কোথাও ঘুরতে গেছেন ভেবে বাড়ি চলে আসেন মিজানুর। সকাল গড়িয়ে দুপুর হয়ে গেলেও হারেজ উদ্দিন বাড়ি ফিরে না আসায় পরিবারের লোকজন বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি শুরু করেন এবং সড়কের পাশে হারেজ উদ্দিনের ব্যবহৃত এক পায়ের একটি জুতা খুঁজে পান।

রাত ১১টার দিকে ছেলে মিজানুরের মোবাইল ফোনে (নম্বর ০১৭১৪৪৬৩৫৩১) রবি সিমের নম্বর (০১৮৬৪৬৭৫১৪৮) থেকে ফোন করে তার বাবা হারেজ উদ্দিনকে অপহরণ করা হয়েছে বলে জানানো হয়। ১০ লাখ টাকা দিলে তার বাবাকে ছেড়ে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়। পরের দিন ১৬ জানুয়ারি ছেলে মিজানুর তার বাবা হরেজ উদ্দিনকে উদ্ধারের জন্য পাঁচবিবি থানায় সাধারণ ডাযেরি  করেন।

আজ শুক্রবার এ বিষয়ে জানতে চাইলে পাঁচবিবি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বজলার রহমান বলেন, তথ্য প্রযুক্তির সহয়তাসহ বৃদ্ধ হারেজ উদ্দিনকে উদ্ধারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত আছে।

এদিকে, অপহৃত হারেজ উদ্দিনের ছেলে মিজানুর রহমান বলেন, পাঁচ দিন হয়ে গেলেও বাবার কোনো  খোঁজ না পেলেও অপহরণকারীরা মাঝে মধ্যে ফোনে তাদের চাহিদা মতো টাকা দাবি করছে। বাড়িতে সবাই চিন্তিত। এতগুলো টাকা যোগাড় করা সম্ভব না হওয়ায় কিছু করতেও পারছি না। অপহরণের এই ঘটনায় আশপাশের এলাকার গভীর ও অগভীর নলকূপ মালিকদের মাঝে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা