kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৮ জুলাই ২০১৯। ৩ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৪ জিলকদ ১৪৪০

‌'ভোটারদের কাছে দেওয়া প্রত্যেকটি ওয়াদা পূরণ করব'

দোহার-নবাবগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

১৪ জানুয়ারি, ২০১৯ ২৩:৩৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



‌'ভোটারদের কাছে দেওয়া প্রত্যেকটি ওয়াদা পূরণ করব'

ছবি: কালের কণ্ঠ

ঢাকা-১ আসনের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য সালমান এফ রহমান বলেছেন, নির্বাচনের আগে ভোটারদের কাছে দেওয়া প্রত্যেকটি ওয়াদা আমি পূরণ করব। জননেত্রী শেখ হাসিনা নতুন এমপিদের নির্দেশও দিয়েছেন যার যার এলাকায় গিয়ে নির্বাচনী ওয়াদা পূরণ করা জন্য।

তিনি সোমবার বিকেলে ঢাকার নবাবগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য সালমান এফ রহমানকে সংবর্ধনা জানাতে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

সংবর্ধনাকে কেন্দ্র করে দুপুর থেকেই নবাবগঞ্জের বিভিন্ন ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড থেকে মিছিল সহকারে অনুষ্ঠানস্থলে আসেন উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। নেতাকর্মীদের আগমনে অনুষ্ঠানস্থলের চারপাশ কানায় কানায় ভরে উঠে। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সালমান এফ রহমানকে স্বাগত জানিয়ে স্লোগান দিতে থাকে নেতাকর্মীরা। অনুষ্ঠানের শুরুতে নবাবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকে প্রধান অতিথি সালমান এফ রহমানকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাসির উদ্দিন ঝিলুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ইউনিক গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নূর আলী, ঢাকা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান, আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য আব্দুল বাতেন মিয়া, সালমান এফ রহমানের ছেলে শায়ান এফ রহমান, দোহার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আলমগীর হোসেন, ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পনিরুজ্জামান তরুণ, ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের মহিলা সম্পাদিকা হালিমা আক্তার লাবন্য, কেন্দ্রীয় মহিলা লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আনারকলি পুতুল, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মরিয়ম জালাল শিমু, ঢাকা জেলা দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন সোহাগসহ আরো অনেকে।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন নবাবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সালমান এফ রহমান বলেন, মাদক, সন্ত্রাসের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স থাকবে। কোনো রকম অন্যায় ও দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেওয়া হবে না। আমি প্রশাসনকে বলেছি, মাদক ও সন্ত্রাসীদের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স দেখাতে। আমার দলের লোক হলেও ছাড় পাবে না। অবৈধভাবে মাটি কাটা বন্ধ করতে হবে। কোনোরকম দুর্নীতি হতে দেওয়া হবে না। কারো জমি কেউ দখল করতে পারবে না। হিন্দু ও খ্রিস্টানদের জমিজমা দখল করলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমার সঙ্গে যোগাযোগ করতে হলে কারো মাধ্যমে আসতে হবে না। আমি সবার সহযোগিতা নিয়ে কাজ করতে চাই।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা