kalerkantho

কক্সবাজার-২ আসনে কেউই পাচ্ছেন না ধানের শীষ প্রতীক

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার   

৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২৩:১২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কক্সবাজার-২ আসনে কেউই পাচ্ছেন না ধানের শীষ প্রতীক

প্রতীকী ছবি

শেষ পর্যন্ত কক্সবাজার-২ (মহেশখালী-কুতুবদিয়া) আসনে ধানের শীষ প্রতীক ছাড়াই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। জামায়াতের দলীয় সাবেক এমপি যুদ্ধাপরাধের দণ্ডাদেশ নিয়ে বর্তমানে কারান্তরীণ এ এইচ হামিদুর রহমান আজাদ পাচ্ছেন না ধানের শীষ প্রতীক। সর্বশেষ আজ রবিবার কক্সবাজারের রিটার্নিং অফিসারের কাছে বিএনপি সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের স্বাক্ষরিত ‘ধানের শীষ’ প্রতীক বরাদ্দের চিঠি হস্তান্তর করা হয় জামায়াত নেতা হামিদ আজাদের পক্ষে।

কিন্তু আইনগত জটিলতায় পড়ে জামায়াত নেতা হামিদ আজাদের ভাগ্যে জুটছে না ‘ধানের শীষ’। কক্সবাজারের ৪টি সংসদীয় আসনের রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন রবিবার রাতে এ কথা নিশ্চিত করেছেন।

অপরদিকে কক্সবাজার-২ একই আসনে ধানের শীষ পাচ্ছেন না বিএনপি’র দলীয় সাবেক এমপি আলমগীর মো. মাহফুজুল্লাহ ফরিদও। তিনিও একই আসনে মনোনয়নপত্র দাখিল করে নির্বাচনী প্রচারণায় রয়েছেন। জামায়াতের সাবেক দলীয় এমপি কারান্তরীণ এ এইচ হামিদুর রহমান আজাদ এবং বিএনপি’র সাবেক দলীয় এমপি আলমগীর মো. মাহফুজুল্লাহ ফরিদসহ দুইজনকেই স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রতীকে লড়তে হবে। ফলে কক্সবাজার-২ আসনটিতে এবারের নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীক থাকছে না।

আসনটিতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থী হচ্ছেন বর্তমান দলীয় এমপি আশেক উল্লাহ রফিক। তিনি মহেশখালী দ্বীপের বাসিন্দা। অপরদিকে বিএনপি’র সাবেক দলীয় এমপি আলমগীর মো. মাহফুজুল্লাহ ফরিদ ও আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আশেক উল্লাহ রফিক হচ্ছেন সম্পর্কে চাচা-ভাতিজা। 

তবে বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, বিএনপি’র সঙ্গে জামায়াতের চুক্তি মাফিক কক্সবাজার-২ আসনটি জামায়াতকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। এ আসনে বিএনপিও জামায়াতকে সহযোগিতা করবে জেলার অপর ৩টি আনরে বিনিময়ে। এ কারণে বিএনপি নেতা আলমগীর মো. মাহফুজুল্লাহ ফরিদ নির্বাচন থেকে শেষ পর্যন্ত সরে যাবেন।

অন্যদিকে জামায়াতের দলীয় সাবেক এমপি যুদ্ধাপরাধের দণ্ডাদেশ নিয়ে বর্তমানে কারান্তরীণ এ এইচ হামিদুর রহমান আজাদ হচ্ছেন কুতুবদিয়া দ্বীপের বাসিন্দা। প্রসঙ্গত, আসনটিতে মোট ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ৯৬ হাজার। মহেশখালী দ্বীপের ভোটারের সংখ্যা ২ লাখ ১১ হাজার এবং কুতুবদিয়া দ্বীপের ভোটারের সংখ্যা হচ্ছে ৮৪ হাজার। আওয়ামী লীগের প্রার্থী এমপি আশেক উল্লাহ রফিকের বাড়ি মহেশখালী দ্বীপে এবং জামায়াতের হামিদুর রহমান আজাদ হচ্ছেন কুতুবদিয়া দ্বীপের বাসিন্দা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা