kalerkantho

রবিবার । ২৬ জুন ২০২২ । ১২ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৫ জিলকদ ১৪৪৩

তিন মাসে গ্রামীণফোনের আয় তিন হাজার ছয়শ ৩৩ কোটি ৫২ লাখ টাকা

অনলাইন ডেস্ক   

২৭ এপ্রিল, ২০২২ ২২:০৪ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



তিন মাসে গ্রামীণফোনের আয় তিন হাজার ছয়শ ৩৩ কোটি ৫২ লাখ টাকা

চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে তিন হাজার ছয়শ ৩৩ কোটি ৫২ লাখ টাকা রাজস্ব আয় করেছে গ্রামীণফোন, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় তুলনায় ৪ দশমিক ৪ শতাংশ বেশি। প্রথম তিন মাসে পাঁচ লাখ নতুন গ্রাহক গ্রামীণফোনের সাথে যুক্ত হয়েছে; এর ফলে এ বছরের প্রথম প্রান্তিকের শেষে গ্রামীণফোনের গ্রাহক সংখ্যা দাঁড়িয়েছে আট কোটি ৩৭ লাখ। গ্রামীণফোনের মোট গ্রাহকের ৫৩ দশমিক ২ শতাংশ বা চার কোটি ৪৬ লাখ গ্রাহক ইন্টারনেট সেবা ব্যবহার করছেন, যা  গত বছরের একই সময়ের তুলনায় যা ৬ দশমিক ৮ শতাংশ বেশি। আজ বুধবার গ্রামীণফোন তাদের এই আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

বিজ্ঞাপন

 

গ্রামীণফোন লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী ইয়াসির আজমান বলেন, ‘চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিক গ্রামীণফোনের জন্য বিভিন্ন কারণে বেশ গুরুত্বপূর্ণ ছিল। গত ২৬ মার্চ গ্রামীণফোন বাংলাদেশে এর পথচলার ২৫ বছর পূর্তি উদযাপন করেছে। সুদীর্ঘ এ পথচলায় সমাজের ক্ষমতায়ন ও ডিজিটাল বাংলাদেশের কানেক্টিভিটি পার্টনার হিসেবে ধারাবাহিকভাবে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। গত মার্চে নিয়ন্ত্রক সংস্থা দেশের সর্ববৃহৎ তরঙ্গ নিলামের আয়োজন করে, যেখানে গ্রামীণফোন অংশ নিয়ে ২ দশমিক ৬ গিগাহার্টজ ব্যান্ডে সর্বোচ্চ বরাদ্দকৃত ৬০ মেগাহার্টজ তরঙ্গ ক্রয় করে। সম্প্রতি, দেশে প্রথমবারের মতো ই-সিম উন্মোচন করে গ্রামীণফোন। এর ফলে গ্রাহকরা তাদের হ্যান্ডসেটে প্রচলিত সিম কার্ড ছাড়াই ই-সিমের মাধ্যমে মোবাইল কানেক্টিভিটি সুবিধা পাবেন। ’ 

তিনি আরো বলেন, ‘কভিড-১৯ বৈশ্বিক মহামারির তৃতীয় বছরে আমরা প্রবেশ করেছি; বাংলাদেশে কভিডের অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। এ পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের অর্থনীতি গতিশীল হয়েছে। কারণ, বাংলাদেশে কভিড শনাক্তের সংখ্যা অনেক কমে গেছে। এ প্রান্তিকে গ্রাহকদের উন্নত ও গুণগত মানের সেবা প্রদানের লক্ষ্যে আমরা নেটওয়ার্ক উন্নীত ও তরঙ্গ বাড়ানোর ওপর গুরুত্বারোপ করেছি। এর ফলে চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিক শেষে আমাদের গ্রাহক সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮ কোটি ৩৭ লাখ। আমরা আমাদের প্রতিষ্ঠানের অভ্যন্তরে চলমান মডার্নাইজেশন ও ট্রান্সফরমেশনের ফল দেখতে পাচ্ছি; যা আমাদের দক্ষতা, সক্ষমতা, ট্যুলস ও পার্টনারশিপ-এর সমন্বয়ে একটি ভবিষ্যত উপযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলতে সহায়তা করবে এবং সামনের দিনগুলোতে আমাদের প্রবৃদ্ধির জন্য চালিকা শক্তি হিসেবে কাজ করবে। ’ 
         
প্রামীণফোন লিমিটেডের প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা ইয়েন্স বেকার বলেন, ‘‘ইবিআইটিডিএ’র ধারাবাহিক প্রবৃদ্ধির সাথে ২০২২ সালে প্রথম তিন মাসে সামগ্রিক ক্ষেত্রে প্রবৃদ্ধি হয়েছে। মোট রাজস্বে বছর প্রতি ৪ দশমিক ৪ শতাংশ সামগ্রিক প্রবৃদ্ধি নিয়ে এ প্রান্তিকে রাজস্ব আয়ের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে তিন হাজার ৬৩৩ কোটি ৫২ লাখ টাকা। গত বছর একই সময়ের তুলনায় সাবস্ক্রিপশন ও ট্র্যাফিক রাজস্ব বেড়েছে ৪ দশমিক ৬ শতাংশ। বছর প্রতি ডেটা রাজস্ব বেড়েছে ৭ দশমিক ৫ শতাংশ ও ডেটা ব্যবহার বেড়েছে ৭৬ দশমিক ৮ শতাংশ। ’

তিনি আরো বলেন, ‘প্রথম প্রান্তিকে ইবিআইটিডিএ গত বছরের একই সময় থেকে ১ দশমিক ৭ শতাংশ বেড়েছে এবং ইবিআইটিডিএ মার্জিন দাঁড়িয়েছে ৬১ দশমিক ১ শতাংশ। আধুনিকায়ন ব্যয় ও মুদ্রার অবমূল্যায়নের কারণে কর পরবর্তী মুনাফায় নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে; যা গত বছরের একই সময় তুলনায় ৯ দশমিক ১ শতাংশ হ্রাস পেয়ে দাঁড়িয়েছে ৮০৯ কোটি ৮২ লাখ টাকা। ২০২২ সালের প্রথম প্রান্তিকে নিট মুনাফা মার্জিন দাঁড়িয়েছে ২২ দশমিক ৩ শতাংশ। ’  

এছাড়া গ্রামীণফোনের কর্মকর্তারা জানান, ২০২২ সালের প্রথম প্রান্তিকে গ্রামীণফোন ৩৯১ কোটি ৯৪ লাখ টাকা নেটওয়ার্ক কাভারেজ ও বিস্তৃতিতে বিনিয়োগ করেছে। এ প্রান্তিক শেষে গ্রামীণফোনের মোট নেটওয়ার্ক সাইটের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ৭২৪টি। প্রতিষ্ঠানটি ২০২২ সালের প্রথম তিন মাসে কর, ভ্যাট, শুল্ক, ফি, ফোরজি লাইসেন্স এবং তরঙ্গ বরাদ্দ বাবদ ২ হাজার ৩০০ কোটি টাকা সরকারি কোষগারে জমা দিয়েছে, যা এর মোট রাজস্বের ৬৩ দশমিক ৩ শতাংশ।



সাতদিনের সেরা