kalerkantho

বৃহস্পতিবার ।  ১৯ মে ২০২২ । ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩  

ইউপিএইচসিএসডিপি-এর কর্মশালা অনুষ্ঠিত

অনলাইন ডেস্ক   

২৭ জানুয়ারি, ২০২২ ১৫:৩৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ইউপিএইচসিএসডিপি-এর কর্মশালা অনুষ্ঠিত

শহরাঞ্চলে সকলের মাঝে স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেওয়ার জন্য স্থানীয় সরকার বিভাগ, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় এর সরাসরি তত্ত্বাবধানে পরিচালিত আরবান প্রাইমারি হেলথ কেয়ার সার্ভিসেস ডেলিভারি প্রজেক্ট ২ আচরণ পরিবর্তন যোগাযোগ ফার্মের কার্যক্রমের উদ্বোধনী ওয়ার্কশপ ঢাকার হোটেল সোনারগাঁওর পদ্মা হলে আজ অনুষ্ঠিত হয়।

ইউপিএইচসিএসডিপি-২ নগর ও পৌরসভাসমূহে বসবাসকারী স্বল্প আয়ের দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবাদানের দায়িত্ব হিসেবে ১৯৯৮ সাল থেকে এখন পর্যন্ত ১১টি সিটি করপোরেশন ও ১৩টি পৌরসভায় ৩৮টি নগর মাতৃসদন, ১৪৯টি নগর স্বাস্থ্যকেন্দ্র এবং ২৯৮টি স্যাটেলাইট ক্লিনিকের মাধ্যমে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, বিশেষ অতিথি মুস্তাকিম বিল্লাহ ফারুকী, অতিরিক্ত সচিব, স্থানীয় সরকার বিভাগ এবং সভাপতিত্ব করেছেন আবুল ফয়েজ মো. আলাউদ্দিন খান, প্রকল্প পরিচালক ও যুগ্ম সচিব, স্থানীয় সরকার বিভাগ, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়।

শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য ও প্রকল্পের সংক্ষিপ্ত উপস্থাপনা পেশ করেন প্রকল্প পরিচালক আবুল ফয়েজ মো. আলাউদ্দিন খান।

বিজ্ঞাপন

তিনি জানান, এই ক্লিনিকগুলোর মাধ্যমে এ পর্যন্ত ১৪ কোটি ইউনিট প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা উদ্দীষ্ট এলাকার জনগণকে প্রদান করা হয়েছে, যার মধ্যে ৩০% অতি দরিদ্রদের মাঝে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে দেওয়া হয়েছে। মাতৃসদন কেন্দ্রে ২৪ ঘণ্টা অভিজ্ঞ ও দক্ষ চিকিৎসক দ্বারা সেবা দেওয়া হয়। 'কেউ পিছিয়ে পড়ে থাকবে না, সকল মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করবে সরকার'।

ইউপিএইচসিএসডিপি দ্বিতীয় পর্যায় শীর্ষক প্রকল্পে উদ্দিষ্ট জনগোষ্ঠীর আচরণ পরিবর্তনের মাধ্যমে তাদের স্বাস্থ্যসেবার মান উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রকল্পের আওতায় (Behavior Change Communication & Marketing) ফার্ম হিসেবে ভিজ্যুয়াল কমিউনিকেশন লিমিটেড এবং কণিকা কনসাল্টিং সার্ভিসেস প্রাইভেট লিমিটেড যৌথভাবে নির্বাচিত হয়েছে। ভিজ্যুয়াল কমিউনিকেশন লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব এ এস এম মারুফ কবির আচরণ পরিবর্তনের মাধ্যমে কিভাবে শহরাঞ্চলের জনগণ স্বাস্থ্যসেবা প্রাপ্তি নিশ্চিত করা এবং প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবার আওতায় আসবেন সে প্রসঙ্গে উপস্থাপনা প্রদান করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জনাব মুস্তাকিম বিল্লাহ ফারুকী বলেন, মানুষের আচরণ পরিবর্তন কার্যকরভাবে করা সম্ভব হলে স্বাস্থ্যসেবায় মানুষ ক্লিনিকমুখী হবে এবং স্বাস্থ্য খাতের যে অর্জনগুলো আমাদের প্রয়োজন তা অর্জন করা সম্ভব হবে।  

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, সাধারণ স্বাস্থ্যসেবার জন্য বড় বড় হাসপাতালে গিয়ে স্বাস্থ্যসেবা নেওয়া সাধারণ মানুষের জন্য কষ্টকর ও ব্যয়সাপেক্ষ। এই সমস্যা সমাধানের জন্য নগর এলাকায় মানুষের স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের লক্ষ্যে নগর স্বাস্থ্যকেন্দ্র চালু করা হয়েছে। ক্রমান্বয়ে সকল সিটি করপোরেশন ও পৌরসভা এই কার্যক্রমের আওতায় আসবে। অনুষ্ঠান শেষে জলের গান মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশনা করেন।



সাতদিনের সেরা