kalerkantho

বুধবার । ৯ আষাঢ় ১৪২৮। ২৩ জুন ২০২১। ১১ জিলকদ ১৪৪২

চট্টগ্রামের সর্ববৃহৎ সুপারমল 'বালি আর্কেড' উদ্বোধন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৩ এপ্রিল, ২০২১ ১৮:১২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চট্টগ্রামের সর্ববৃহৎ সুপারমল 'বালি আর্কেড' উদ্বোধন

শুক্রবার (২ এপ্রিল) সন্ধ্যায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করা হল চট্টগ্রামে সবচেয়ে বড় সুপারমল 'বালি আর্কেড ‘ । শেঠ প্রপার্টিজের অনন্য উদ্যোগে ব্যবসা, শপিং এবং বিনোদনের পরিপূর্ণ আয়ােজন নিয়ে চট্টগ্রামের চকবাজারে উদ্বোধন হল এই সুপারমলটি। শেঠ গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান শেঠ প্রপার্টিজ লিমিটিডের একটি সিগনেচার প্রকল্প হিসেবে বিশ্বমানের সুবিধা নিয়ে নান্দনিক শৈল্পিকতায় নির্মিত হয়েছে এই এই সুপারমলটি। ২টি বেইজম্যান্ট কার পার্কিংসহ মোট ১৪ তলা বিশিষ্ট স্বয়ংসম্পূর্ণ বাণিজ্যিক কমপ্লেক্স হিসেবে বালি আর্কেড প্রকল্পটি নির্মিত হয়েছে শহরের প্রাণকেন্দ্র চকবাজার সিরাজুদ্দৌলা সড়কে।

সুপার মলের উদ্বোধন করেন শেঠ গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলহাজ্ব মোহাম্মদ সোলায়মান আলম শেঠ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন শেঠ গ্রুপের সিইও ও পরিচালক মোঃ আফতাব আলম শেঠ, পরিচালক মোঃ নুরুল আলম শেঠ, পরিচালক (হিসাব) ওয়াহিদুল আলম শেঠ, পরিচালক মোঃ মাশহুর আলম শেঠ, পরিচালক মোঃ উজায়ের আলম শেঠ, পরিচালক মিসেস সারিস্ত বিনতে নুর, পরিচালক উমায়ের আলম শেঠ, পরিচালক অপারেশন টুলু-উশ্-শামস্। এবং অভিনেত্রী জয়া আহসান।

শপিংমলে ৩টি সিনেপ্লেক্স, ২টি ফুডকোট, কনভেনশন হলসহ মোট ২৬০টি শপ, শোরুম এবং ডিসপ্লে সেন্টার রয়েছে। বিশ্বমানের আর্কিটেকচারাল ডিজাইনে নির্মিত এই প্রকল্পে রয়েছে ৩০ হাজার স্কয়ার ফিটের দেশের অন্যতম বৃহৎ এমিউজমেন্ট পার্ক । রয়েছে চট্টগ্রামের প্রথম এবং সর্ববৃহৎ অভিজাত শ্রেণির ফ্যামিলি এন্টারটেইনমেন্ট ডেস্টিনেশন ক্যাসাব্লাংকা'।

এখানে উল্লেখ্য, মরহুম আজিজুর রহমান চৌধুরীর একমাত্র কন্যা, মরহুম মাহাবুবুল আলম শেঠ (বাচ্চু নবাব) এর সহধর্মনিী মরহুমা সখিনা বেগম (বালি) এর নামে চট্টগ্রামের সর্ববৃহৎ সুপার মল "বালি আর্কেড" এর নামকরন করা হয়েছে।

বিশ্বমানের সুপারমল বালি আর্কেডে আরও রয়েছে আন্তর্জাতিকমানের পৃথক পৃথক কুইজিন বেইস ফুডকোট, স্বতন্ত্র লেডিস জোন। যেখানে ক্রেতা-বিক্রেতা সকলেই থাকবেন নারী। এছাড়া রয়েছে বিভিন্ন ব্র্যান্ডশপ সম্বলিত মোবাইল ফোন, মোবাইল এক্সেসরিজ, কসমেটিক জোন, জেন্টস ব্র্যান্ডশপ, লাইফস্টাইল, পার্লারসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডপ্রতিষ্ঠান, যেখানে ১৫০ টির ও অধিক গাড়ী পাকিং রয়েছে। পুরো শপিংমলটিই ফ্রি ওয়াইফাই-এর আওতাভুক্ত রেখেছে কর্তৃপক্ষ। বিজ্ঞাপনসহ বিভিন্ন ভিডিও কনটেন্ট প্রদর্শনের শপিংমলের সম্মুখে স্থাপন করা হয়েছে দুটি সুবিশাল জায়ান্ট সিনেস্ক্রিন।

অনুষ্ঠানে শেঠ প্রপার্টিজের এম.ডি আলহাজ্ব মোহাম্মদ সোলায়মান আলম শেঠ জানান, বালি আর্কেডের উদ্বোধন উপলক্ষে ২৭ মার্চ থেকে প্রতিদিন ফানুস উড়ানোর কর্মসূচির মাধ্যমে শুরু হয়েছে সপ্তাহব্যাপী বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানমালা।

তিনি আরো বলেন, উদ্বোধনের আগে পুরো বালি আর্কেডে পর্দা দিয়ে ঢাকা ছিল। দীর্ঘদিন ধরে নান্দনিক এই বাণিজ্যিক কমপ্লেক্সটি নির্মাণে প্রকৌশলী কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং যে সকল শ্রমিক তাদের শ্রম-ঘাম দিয়েছেন সেই শ্রমিকরা সম্মিলিতভাবে বালি আর্কেডের উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনের দিন ছাড়াও পুরো রমজান মাস জুড়ে নানা আনুষ্ঠানিকতায় বালি আর্কেডে দেশখ্যাত তারকাদের প্রতিনিয়ত অংশগ্রহণ থাকবে। রমজানে বালি আর্কেড থেকে শপিং করলেই সকল ক্রেতা পাবেন বিশেষ উপহার।



সাতদিনের সেরা