kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭। ৪ মার্চ ২০২১। ১৯ রজব ১৪৪২

ভাষার মাসকে স্মরণীয় করে রাখতে ডিপিএস এসটিএসের বর্ণাঢ্য আয়োজন

অনলাইন ডেস্ক   

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৫:২৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভাষার মাসকে স্মরণীয় করে রাখতে ডিপিএস এসটিএসের বর্ণাঢ্য আয়োজন

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ডিপিএস এসটিএস স্কুল, ঢাকা (দিল্লি পাবলিক)-র ছাত্র, শিক্ষক ও অভিভাবকগণ নানাধরণের কর্মকাণ্ডের মধ্য দিয়ে নিজ নিজ আন্তরিক শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেছেন। ভাষা সংগ্রাম ও একুশের তাৎপর্যকে আগামী প্রজন্মের মাঝে জাগিয়ে রাখার প্রচেষ্টা থেকে এ দিনে ডিপিএস এসটিএস স্কুলের পক্ষ থেকে ছাত্রদের জন্য বিভিন্ন ধরণের অংশগ্রহণমূলক কর্মকাণ্ডের আয়োজন করা হয়। গোটা আয়োজনটির মূল লক্ষ্য ছিল ভাষাশহীদদের মহান আত্মত্যাগকে শ্রদ্ধা ভরে স্মরণ করা এবং বাঙালির ঐতিহাসিক শোকের আবহকে উপলব্ধি করা।

ডিপিএস এসটিএস স্কুলের প্রিন্সিপাল মাধু ওয়াল, ভাইস প্রিন্সিপাল ড. শিবানন্দ সিএসসহ স্কুলের সিনিয়র লিডারশিপ টিমের সকল সদস্য একসাথে ২১ ফেব্রুয়ারি ভোরে খালি পায়ে হেঁটে স্কুলের অভ্যন্তরীণ শহীদ মিনারে যান এবং পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। শোকসন্তপ্ত পরিবেশের গভীরতাকে ধারণ করার লক্ষ্যে বাজানো হয় নানা দেশাত্মবোধক গান। গোটা দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখার লক্ষ্যে স্কুলের শিক্ষার্থীরা নানারকম সাংস্কৃতিক চর্চা ও প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে, যার মধ্যে ব্যান্ড ‘ইগনাইট’-এর পরিবেশনা ছিল উল্লেখযোগ্য। এছাড়া মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে স্কুলটির ছাত্রছাত্রীরা বিশেষ আর্ট প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে।

এ প্রসঙ্গে ডিপিএস এসটিএস স্কুলের প্রিন্সিপাল মাধু ওয়াল বলেন, আমরা প্রায়শই আমাদের নিজ মাতৃভাষার গুরুত্বের প্রতি উদাসীন বা অসংবেদনশীল হয়ে পড়ি। এ বছর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ডিপিএস এসটিএস স্কুলের মূল লক্ষ্য ছিল ছাত্রছাত্রীদের মাঝে মায়ের ভাষার মূল শেকড়কে অনুসন্ধানের অনুপ্রেরণা যোগানো। দিবসটিকে কেন্দ্র করে আয়োজিত প্রতিযোগিতাগুলোতে ছেলেমেয়েদের প্রাণবন্ত অংশগ্রহণ আমাদেরকে আশাবাদী করে তুলেছে যে, আমাদের সামনে এখনো যথেষ্ট সুযোগ আছে মাতৃভাষা প্রসঙ্গে আগামীর প্রজন্মকে আগ্রহী করে তোলার। হয়তো এমন ধারাবাহিক আয়োজনের মধ্য দিয়েই আমরা ভবিষ্যতের মেধাবী ভাষাবিদদের খুঁজে বের করতে পারবো।

ভাষার মাসের আগমণের শুরু থেকেই ডিপিএস এসটিএস ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে ‘৫২র ভাষা আন্দোলন ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস প্রসঙ্গে আলোচনা উৎসাহিত করে আসছে। এরই অংশ হিসেবে গত ১৮ ফেব্রুয়ারি তারিখে স্কুলের শিক্ষার্থীরা সকলে সাদা-কালো পোষাক পরে ভাষা শহীদদের আত্মত্যাগের প্রতি একাত্মতা প্রকাশ করে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা