kalerkantho

সোমবার । ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৭ মে ২০২১। ০৪ শাওয়াল ১৪৪

রিদ্মিক ল্যাবস

ইন্টারনেট এবং অ্যাপ্লিকেশনের নতুন সম্ভাবনার দুয়ার

অনলাইন ডেস্ক   

৭ জানুয়ারি, ২০২১ ২১:৫৬ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



ইন্টারনেট এবং অ্যাপ্লিকেশনের নতুন সম্ভাবনার দুয়ার

সম্প্রতি রিদ্মিক ল্যাবসে ইন্টারনেট এবং অ্যাপ্লিকেশনের নতুন সম্ভাবনার দুয়ার শীর্ষক কর্মশালার আয়োজন করা হয়। রিদ্মিক কীবোর্ডের প্রতিষ্ঠাতা শামীম হাসনাত কর্মশালায় ইন্টারনেট এবং অ্যাপ্লিকেশনের নতুন সম্ভাবনার দুয়ার বিষয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

রিদ্মিক কিবোর্ড-এর প্রতিষ্ঠাতা শামীম হাসনাত সাক্ষাৎকারে তাঁর জীবন এবং রিদ্মিক ল্যাবস সম্পর্কে জানান। তিনি কথা বলেন বাংলাদেশের ইন্টারনেট ভিত্তিক স্টার্টআপ ইকোসিস্টেমের ব্যাপারেও। এই আর্টিকেলটি শামীম হাসনাত সাক্ষাৎকার থেকে নেওয়া।

প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে সব কিছু সহজ করে তোলাই ছিল শামীম হাসনাত এর ছোটবেলা থেকে স্বপ্ন। সে স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে তার সাথে যোগ দেয় আমেরিকা ভিত্তিক ইন্টারনেট বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান "ডাটাবার্ড"। ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্নের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে, দেশের ইন্টারনেট সেবা ব্যবহারকারীদের উন্নত ও আধুনিক প্রযুক্তি প্রদানের মাধ্যমে বিগত ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে একাগ্রতার সাথে কাজ করে যাচ্ছে ডাটাবার্ড (www.databird.co)।দেশের দ্রুত বর্ধমান ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের চাহিদা মেটানোর উদ্দেশ্যে সুবিধাজনক ডিজিটাল পরিষে বানিয়েই ডাটাবার্ড এর কার্যক্রম।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) থেকে পাশ করে তিনি বিভিন্ন সফটওয়্যার কোম্পানিতে চাকরির পাশাপাশী নিজের ব্যবহারের জন্যও বেশ কিছু সফটওয়্যার বানান। বর্তমানে তিনি ডাটাবার্ড এর সিটিও এবং রিদ্মিকল্যাবস এর সিইও পদে নিয়োজিত আছেন।

তবে তার সব সময়ে লক্ষ্য ছিল ইন্টারনেট এবং মানুষ যাতে সবকিছু সহজে ব্যবহার করতে পারে। সর্বপ্রথম ২০১২ সালে তিনি রিদ্মিকল্যাবস এর প্রথম অ্যাপ হিসেবে একটি বাংলাটাইপ করার কিবোর্ড বের করেন যার নাম“রিদ্মিককিবোর্ড”। তৎকালীন মোবাইলে বাংলা লেখার জন্য ব্যবহারকারী বান্ধব কোন কিবোর্ড ছিলনা। সহজে যাতে মোবাইলে বাংলা লেখা যায় সেই চিন্তা থেকে ২০১২ সালে রিদ্মিক কিবোর্ড অ্যাপ স্টোরে পাবলিশ করেন।তখন থেকে এখন পর্যন্ত এটি বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় বাংলা কিবোর্ড। বর্তমানে রিদ্মিক কিবোর্ডের মাসিক সর্বমোট ২ কোটি ৩০ লাখ সক্রিয় ব্যবহারকারী রয়েছেন এবং ৫ কোটির বেশি বার এটি ডাউনলোড করা হয়েছে।

২০১৮ সালে আমেরিকা ভিত্তিক ইন্টারনেট বিনিয়োগ কারী কোম্পানি "ডাটাবার্ড " রিদ্মিকল্যাবস-এ বিনিয়োগ শুরু করে বিশ্বমানের কিছু অ্যাপ তৈরির লক্ষ্যে। ইন্টারনেট সেবা সকলের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য ডাটাবার্ড অনলাইন ভ্রমণ, সংবাদ, কীবোর্ড, ই-রিডার এবং লাইফ স্টাইল মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন এর পিছনে কাজ করে যাচ্ছে।

বর্তমান জগতের গতানুগতিক অনলাইন নিউজ পোর্টাল থেকে ভিন্ন কিছু করার জন্য রিদ্মিকল্যাবস তৈরি করেন রিদ্মিক নিউজ। বই পিপাসুদের জন্য বই পড়াকে সহজ করে দিতে রিদ্মিকল্যাবস নিয়ে এসেছে ই-রিডার অ্যাপ "বইটই"। বইটই ব্যবহারের মাধ্যমে অনলাইনে সহজে ই-বই কেনার পাশাপাশি, ফ্রিতে পড়ে নিতে পারেন দেশ বিদেশের আপনার সকল পছন্দের বই।

ডাটাবার্ড ইন্টারনেট ইকোসিস্টেমের আওতায় রিদ্মিকল্যাবস নিয়ে আসছে চ্যাটিং বা মেসেজিং অ্যাপ যার নাম "রিদ্মিক"।এই অ্যাপটি ব্যবহার করে আপনি উন্নতমানের অডিও বা ভিডিও কল ও মেসেজিং এর মাধ্যমে কাছের মানুষের সাথে সংযুক্ত থাকতে পারবেন খুব সহজে। প্রিয়জনদের সাথে যোগাযোগে বাঙালী সংস্কৃতির ছোঁয়া দিতে এই অ্যাপটিতে থাকবে নানা রকমের সুবিধা। ব্যবহারকারীদের নির্ঝঞ্ঝাট যোগাযোগ মাধ্যম প্রদান করার জন্য এখন অ্যাপটি এই মূহুর্তে বেটাটেস্টিং এ আছে এবং শীঘ্রই গুগল প্লেস্টোর এবং অ্যাপল অ্যাপস্টোর থেকে ডাউনলোড করতে সক্ষম হবেন সবাই।

এছাড়াও রিদ্মিক এর চ্যাট অ্যাপটির একটি দারুণ ফিচার হচ্ছে “বিট” যা একটি লয়ালিটি প্রোগ্রাম। রিদ্মিক মেসেজিং অ্যাপ এ গ্রাহকরা বাংলায় লিখে “বিট” অর্জন করতে পারবে। এই “বিট” লয়ালিটি পয়েন্ট হিসেবে গ্রাহকের বাকেটে জমা হবে যা দিয়ে ব্যবহারকারীরা অ্যাপ থেকে বিভিন্ন ডিজিটাল পণ্য সংগ্রহ করতে পারবেন।

এছাড়াও রিদ্মিক ল্যাবস-এ রয়েছে রিদ্মিকফ্রেন্ডস+ নামের একটি প্রোগ্রাম। এই ফ্রেন্ডস+ প্রোগ্রাম এর সাথে সংযুক্ত থাকলে আপনিও রিদ্মিক ল্যাবসের যেকোন অ্যাপ এর বেটা অথবা টেস্টভার্সন ব্যবহার করে আপনার মূল্যবান মতামত শেয়ার করতে পারবেন রিদ্মিকল্যাবসটিম এর সাথে।

বর্তমানে বাংলাদেশের তৈরি অ্যাপ যে বিশ্বমানের হতে পারে তারই প্রমাণ দিয়ে যাচ্ছে রিদ্মিকল্যাবস। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে মানুষকে দেশেই তৈরি অ্যাপ এর মাধ্যমেই ইন্টারনেট সেবা প্রদান করাই রিদ্মিকল্যাবস এর মূল লক্ষ্য বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।



সাতদিনের সেরা