kalerkantho

রবিবার । ১৫ ফাল্গুন ১৪২৭। ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১৫ রজব ১৪৪২

রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ৪৮তম বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত

অনলাইন ডেস্ক   

২৭ ডিসেম্বর, ২০২০ ২০:৪৭ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ৪৮তম বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ৪৮তম বার্ষিক সাধারণ সভা আজ ২৭ ডিসেম্বর হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ম্যানেজিং বোর্ডের সদস্যবৃন্দ, ৬৪টি জেলা রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট ও ৪টি সিটি ইউনিটের ডেলিগেটবৃন্দ, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ, সমাজ কল্যাণ এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, আইএফআরসি ও আইসিআরসির বাংলাদেশস্থ প্রধানগণ, বিভিন্ন দেশের জাতীয় রেড ক্রস রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।

আজ রবিবার সকাল ১০ টায় হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত বার্ষিক সাধারণ সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান হাফিজ আহমদ মজুমদার, এমপি। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সোসাইটির মহাসচিব জনাব মো: ফিরোজ সালাহ্ উদ্দিন। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ভাইস চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা: মো: হাবিবে মিল্লাত, এমপি। বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ম্যানেজিং বোর্ড মেম্বার ও খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, মি: পাবলো পের্চেলসি, আইসিআরসি বাংলাদেশ হেড অফ ডেলিগেশন, মি: সান্জীব কুমার কাফলে, অ্যাকটিং হেড অব কান্ট্রি অফিস, আইএফআরসি, বাংলাদেশ ও বিভিন্ন জেলা ইফনিট থেকে আগত ডেলিগেটবৃন্দ। এর আগে সভার শুরুতেই বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে সোসাইটির ম্যানেজিং বোর্ডের পক্ষে পুষ্পমাল্য অর্পন করা হয়।

বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান হাফিজ আহমদ মজুমদার, এমপি বলেন, কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে সরকারের সহযোগী সংস্থা হিসেবে সরকারের আহবানে সাড়া দিয়ে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি মানবিক কার্যক্রম পরিচালনা করে যাচ্ছে। কোভিড-১৯ আক্রান্তদের চিকিৎসার সুবিধার্থে হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে নন কোভিড হাসপাতাল থেকে কোভিড হাসপাতালে স্থানান্তর করাসহ রোগীদের পরিবহনে অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস চালু, হলি ফ্যামিলি হাসপাতাল ও কক্সবাজারের ক্যাম্পগুলোতে বসবাসরাতদের জন্য অত্যাধুনিক আইসোলেশন সেন্টার চালু ও মরদেহ সংরক্ষণে হিমঘর স্থাপন করেছে।

তিনি বলেন, অতীতের যেকোন সময়ে চেয়ে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করে যাচ্ছে। সততা ও নিষ্ঠার সাথে সকলে মিলেমিশে কাজ করলে যেকোন প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন সম্ভব। ডেলিগেটদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, আপনাদের নিজেদের উদ্যোগেই ইউনিটগুলোকে আরো কার্যকর ও আর্থিকভাবে স্বয়ংসম্পূর্ণ করতে হবে। তাহলেই আমরা আমাদের কাংখিত লক্ষ্যে পৌছাতে সক্ষম হবো। তিনি বলেন, ভলেন্টিয়াররা বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির মুল চালিকাশক্তি। স্কুল-কলেজের ছেলেমেয়েদের ভলেন্টিয়ার হবার জন্য উদ্ধুদ্ধ করতে হবে।

বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ভাইস চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা: মো: হাবিবে মিল্লাত, এমপি বলেন, বর্তমান কোভিড পরিস্থিতি মোকাবেলাসহ যেকোন মানবিক কার্যক্রম সোসাইটির জাতীয় সদরদপ্তরসহ ৬৮টি ইউনিটের মাধ্যমে বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি মানবিক কার্যক্রমে এই বলিষ্ঠ অবদান রাখার জন্য বিভিন্ন আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি লাভ করেছে। তার মধ্যে আইসিআরসি’র জিন হেনরি ডুনান্ট পুরস্কার, আমেরিকান রেড ক্রস কর্তৃক প্রদত্ত ইন্টারন্যাশনাল হিউম্যানিটেরিয়ান এ্যাওয়ার্ডসহ অন্যান্য স্বীকৃতি অন্যতম। এসব অর্জনে উপস্থিত ডেলিগেটবৃন্দ, স্বেচ্ছাসেবকসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অবদানের জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।

এদিকে ৪৮তম বার্ষিক সাধারণ সভা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী এবং সম্মানিত স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন।

বার্ষিক সাধারণ সভা উপলক্ষে দেওয়া মহামান্য রাষ্ট্রপতির বাণী পাঠ করেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ব্যবস্থাপনা পর্ষদ সদস্য জনাব এ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহিন এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন সোসাইটির ব্যবস্থাপনা পর্ষদ সদস্য ম্যানেজিং বোর্ড মেম্বর রাজিয়া সুলতানা লুনা।

রাষ্ট্রপতি তাঁর লিখিত বাণীতে আর্ত মানবতার সেবায় রেড ক্রিসেন্টের অবদানের কথা তুলে ধরে বলেন, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে দেশে সংঘটিত বিভিন্ন প্রাকৃতিক ও মানবসৃষ্ট দুর্যোগ মোকাবিলাসহ সকল মানবিক সহায়তা কার্যক্রমে সরকারের সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসাবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি, করোনা মহামারী মোকাবিলায় হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম পরিচালনা ও অ্যাম্বুলেন্স সেবাসহ কোভিড-১৯ এর ফলে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের সেবার প্রশসংসা করেন।

প্রধানমন্ত্রী তার বাণীতে রেড ক্রিসেন্টের কর্মকাণ্ডের প্রশংসা করে বলেন, দেশের দুর্যোগপ্রবণ জেলাসমূহে দুর্যোগকালীন ও দুর্যোগ পরবর্তী ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনতে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির নেওয়া দুর্যোগের পূর্বাভাসভিত্তিক অর্থায়ন কার্যক্রম বিশ্বব্যাপী এখন সমাদৃত।

বার্ষিক সাধারণ সভায়, ২০১৯ সালের অডিট রিপোর্ট, ২০২০ সালের সংশোধিত বাজেট এবং ২০২১ সালের প্রস্তাবিত বাজেট, ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত সোসাইটির ৪৭তম বার্ষিক সাধারণ সভার কার্যবিবরণী ও ২০২০ সালের বার্ষিক প্রতিবেদন অনুমোদন করা হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা