kalerkantho

শনিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৮ নভেম্বর ২০২০। ১২ রবিউস সানি ১৪৪২

৬৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার রিয়েলমি ৭ আই বাজারে

অনলাইন ডেস্ক   

১৭ অক্টোবর, ২০২০ ১৫:৩৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



৬৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার রিয়েলমি ৭ আই বাজারে

সম্প্রতি বাংলাদেশের স্মার্টফোন বাজারে রিয়েলমি ৭ আই ও রিয়েলমি ৭ প্রো উন্মুক্ত হয়েছে। ১৮,৯৯০ টাকা মূল্যে রিয়েলমি সেভেন আই সর্বপ্রথম এই মূল্য তালিকায় নিয়ে এসেছে ৬৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। পাশাপাশি আছে ৮ গিগাবাইট র‍্যাম ও ১২৮ গিগাবাইট রম। ডিভাইসটি এখন রিয়েলমি ব্র্যান্ডশপ ছাড়াও অনুমোদিত সকল স্মার্টফোন স্টোরে পাওয়া যাচ্ছে।

প্রাথমিকভাবে ই-কমার্স সাইট দারাজ-এ রিয়েলমি অনলাইন ফার্স্ট সেল-এ এর ৩,০০০ এর-ও বেশি ইউনিট বিক্রি করে “দারাজে ৪৮ ঘন্টায় সর্বোচ্চ বিক্রি হওয়া ৬৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা স্মার্টফোন” এর খেতাব লাভ করেছে।

এ বিষয়ে রিয়েলমি-এর গ্লোবাল ব্র্যান্ড ম্যানেজার রিভস লি বলেন, “রিয়েলমি ৭ আই-এর অসাধারণ পারফরম্যান্স, নকশা এবং মান আমাদের ব্র্যান্ডের ‘ডেয়ার টু লিপ’ প্রতিশ্রুতিকেই তুলে ধরেছে। একটি বিশাল সংখ্যক তরুণদের হাতে ফ্ল্যাগশিপ ফিচারের ফোন তুলে দেয়াই আমাদের মূল লক্ষ্য। সাম্প্রতিক সময়ে ফ্যানদের থেকে আমরা যে ব্যাপক সাড়া পেয়েছি তা তরুণদের জন্যে উদ্ভাবনী প্রযুক্তি নিয়ে আসতে আমাদেরকে আরো উৎসাহিত করছে।”

রিয়েলমি ৭ আই-এর ৬.৫-ইঞ্চির ডিসপ্লেতে আছে ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট ও ১২০ হার্টজের স্যাম্পলিং রেট। ডিভাইসটিতে আছে ৮ গিগাবাইট র‍্যাম এবং ১২৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল স্টোরেজ। এছাড়াও আছে ৫,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের শক্তিশালী ব্যাটারি ও ১৮ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং, যা দিয়ে ৩০ মিনিটে ৩৩ শতাংশ চার্জ করা যাবে।

এ ফোনটিতে আছে আল্ট্রা-ক্লিয়ার কোয়াড-ক্যামেরা সেট-আপ, যাতে ৬৪ মেগাপিক্সেলের মূল ক্যামেরার সাথে আছে ৮ মেগাপিক্সেলের ১১৯-ডিগ্রি আল্ট্রা-ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল লেন্স, একটি ম্যাক্রো লেন্স, এবং একটি সাদাকালো পোর্ট্রেট লেন্স। রিয়েলই ৭ আই-এর বিল্ট-ইন তিনটি জনপ্রিয় ৩টি নাইট ফিল্টার - ফ্ল্যামিঙ্গো, সাইবারপাঙ্ক, এবং মডার্ন গোল্ডে রাতের আলোয় আরো আকর্ষনীয় ছবি তোলা যাবে। চকচকে সেলফির জন্যে আছে উন্নত সনি আইএমএক্স৪৭১ সেন্সরে ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা, যা ফ্রন্ট প্যানোরামা, এবং ইউআইএস স্টেবিলাইজেশন সমর্থন করে।

গেমিং ও কাজে পারফরম্যান্সের জন্য এতে আছে স্ন্যাপড্রাগন ৬৬২ প্রসেসর, ক্রায়ো ২৬০ সিপিইউ, এবং অ্যাড্রেনো ৬১০ জিপিইউ। এতে সর্বোচ্চ ২.০ গিগাহার্টজ গতিতে কাজ করা যাবে। অরোরা গ্রিন ও পোলার ব্লু রঙে পাওয়া যাচ্ছে রিয়েলমি ৭ আই।

এছাড়া রিয়েলমি ৭ প্রো’র প্রি-অর্ডারও শুরু হয়েছে, যার বাজার মূল্য নির্ধারণ হয়েছে ২৭,৯৯০ টাকা। ৬৫ ওয়াট সুপারডার্ট চার্জিং-এ ৭ প্রো’র ৪,৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি মাত্র ৩ মিনিটে ১৩ শতাংশ, এবং ৩৪ মিনিটে ১০০ শতাংশ পর্যন্ত চার্জ হয়। ডিভাইসটির মূল ক্যামেরা হিসেবে আছে ৬৪ মেগাপিক্সেল সনি আইএমএক্স৬৮২ সেন্সর, ৮ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা-ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল, একটি ম্যাক্রো এবং একটি সাদাকালো পোর্ট্রেট লেন্স। ৮ ন্যানোমিটারের স্ন্যাপড্রাগন ৭২০জি, ৮ গিগাবাইট এলপিডিডিআর৪এক্স র‍্যাম এবং ১২৮ গিগাবাইট ইউএফএস ২.১ রমে এই ফোন দিবে অনন্য পার্ফরম্যান্স।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে রিয়েলমি জানিয়েছে এ মুহূর্তে বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠানটির ১০০টিরও বেশি ব্র্যান্ডশপ আছে, যেখান থেকে ফোন দুটি সংগ্রহ করা যাবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা