kalerkantho

রবিবার । ৯ কার্তিক ১৪২৭। ২৫ অক্টোবর ২০২০। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

কভিড-১৯ চলাকালীন সময়েও দেশজুড়ে ইন-হোম সেবা দিচ্ছে স্যামসাং

অনলাইন ডেস্ক   

২ অক্টোবর, ২০২০ ০১:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কভিড-১৯ চলাকালীন সময়েও দেশজুড়ে ইন-হোম সেবা দিচ্ছে স্যামসাং

প্রয়োজন অনুযায়ী ক্রেতাদের বিক্রয়োত্তর সেবা প্রদানে কভিড-১৯ চলাকালীন সময়েও স্যামসাং বাংলাদেশ দেশজুড়ে ইন-হোম সেবা প্রদান করছে। দেশের একমাত্র প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্যামসাং বাংলাদেশই এ বৈশ্বিক মহামারিতে ক্রেতাদের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে দিচ্ছে।  

সকল হোম অ্যাপ্লায়েন্স সামগ্রীর ক্ষেত্রে সার্ভিস ভ্যানের মাধ্যমে দেশজুড়ে এ সেবা প্রদান করছে স্যামসাং। এমনকি দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলেও বসবাসরত স্যামসাংয়ের ক্রেতারা এ সুবিধা উপভোগ করছেন। ক্রেতারা স্যামসাং -এর কল সেন্টারে যোগাযোগের মাধ্যমে নিয়মিত রক্ষণাবেক্ষণের অংশ হিসেবে পণ্য পরীক্ষা করাতে পারেন কিংবা প্রয়োজনে পণ্যের মেরামত সেবা গ্রহণ করতে পারেন। স্যামসাংয়ের দক্ষ সার্ভিস টিমের সদস্যরা সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী সকল ধরনের স্বাস্থ্যবিধি ও সুরক্ষামূলক নিয়ম মেনে ক্রেতাদের সব ধরনের সহায়তা দিবে। এ ইন-হোম সেবাটি পেতে ক্রেতাদের ২৪/৭ কল সেন্টারে (০৮০০০-৩০০-৩০০) যোগাযোগ করতে হবে এবং তাদের সেবা প্রাপ্তির বিষয়ে নিবন্ধন করতে হবে। পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে স্যামসাংয়ের পেশাদার কারিগররা ক্রেতার সাথে যোগাযোগ করে সময়সূচি নির্ধারণ করবেন এবং নিয়ম অনুসারে প্রয়োজনীয় অন্যান্য প্রক্রিয়াও অনুসরণ করা হবে।

চলমান বৈশ্বিক মহামারির সময় এ সেবা গ্রহণকারী স্যামসাংয়ের একজন ক্রেতা শাহরিয়ার খান। তিনি বলেন, আমাদের রেফ্রিজারেটরের দরজাটি নষ্ট হয়ে গিয়েছিল। এ পরিস্থিতিতে আমাদের সেবা প্রাপ্তির প্রয়োজনীয়তার বিষয়টি স্যামসাংয়ের কল সেন্টারে জানানো হলে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রতিষ্ঠানটির দক্ষ কারিগররা বাসায় এসে পণ্যটি মেরামত করে দেয়। আমরা তাদের সেবায় পুরোপুরি সন্তুষ্ট এবং এ পরিস্থিতিতেও ক্রেতাদের চমৎকারভাবে সেবা প্রদানের জন্য স্যামসাংকে ধন্যবাদ। 

পণ্যের ওয়্যারেন্টির মেয়াদ রয়েছে এমন ক্রেতাদের জন্য পুরো সেবাটি বিনামূল্যে প্রদান করা হবে। আর যাদের ওয়্যারেন্টির মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে তারাও স্বল্প খরচে এ সেবাটি গ্রহণ করতে পারবেন।

স্যামসাং বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার স্যাংওয়ান ইয়ুন বলেন, ‘গত এক দশকে ক্রেতাদের সাথে আমাদের যে বন্ধন তৈরি হয়েছে সেটা আমাদের কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এ প্রতিকূল সময়েও ক্রেতাদের প্রয়োজনীয়তার নিরিখে আমারা এগিয়ে এসেছি। আমাদের জন্য ক্রেতাদের সেবাদানই মুখ্য, তাদের প্রয়োজনে আমরা দেশজুড়ে এ সেবা দিচ্ছি। এ অনিশ্চিত সময়ে, ক্রেতার সহয়তা প্রদানের জন্য স্যামসাংয়ের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে; তাই, এ প্রতিকূল সময়ে ক্রেতাদের প্রয়োজন মেটাতে ও তাদের নিশ্চিন্ত রাখতে আমাদের নিবেদিত কর্মীরা তাদের পাশেই রয়েছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা