kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৬ কার্তিক ১৪২৭। ২২ অক্টোবর ২০২০। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ইসলামী ব্যাংকের উদ্যোগে শরিয়া পরিপালনবিষয়ক ওয়েবিনার

অনলাইন ডেস্ক   

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১৬:০৩ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ইসলামী ব্যাংকের উদ্যোগে শরিয়া পরিপালনবিষয়ক ওয়েবিনার

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের ঢাকা ইস্ট জোনের উদ্যোগে ‘ব্যাংকিং কার্যক্রমে শরিয়া পরিপালন’ শীর্ষক ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত শনিবার ভার্চুয়্যাল প্লাটফর্মে এ ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত হয়।

ঢাকা ইস্ট জোন প্রধান মোহাম্মদ উল্লাহ’র সভাপতিত্বে ওয়েবিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন ব্যাংকটি নির্বাহী পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. সেলিম উদ্দিন, বিশেষ অতিথি ছিলেন ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহবুব উল আলম, প্রধান আলোচক ছিলেন শরী‘আহ্ সুপারভাইজরি কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান মুফতী ছাঈদ আহমদ। এতে আরও বক্তব্য রাখেন নির্বাহী ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. শাসসুল হুদা ও মো. শামসুদ্দোহা। ব্যাংকের নির্বাহী ও কর্মকর্তাগণ ওয়েবিনারে অংশগ্রহণ করেন।

ঢাকা ইস্ট জোনপ্রধান মোহাম্মদ উল্লাহর সভাপতিত্বে ওয়েবিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন ব্যাংকটি নির্বাহী পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. সেলিম উদ্দিন, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহবুব উল আলম, প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য দেন শরিয়া সুপারভাইজরি কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান মুফতী ছাঈদ আহমদ। এতে আরো বক্তব্য রাখেন নির্বাহী ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. শাসসুল হুদা ও মো. শামসুদ্দোহা। ব্যাংকের নির্বাহী ও কর্মকর্তাগণ ওয়েবিনারে অংশগ্রহণ করেন।

অধ্যাপক ড. মো. সেলিম উদ্দিন প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, ইসলামী ব্যাংকিং কোন কল্পনা বা তাত্ত্বিক কথা নয় বরং বিশ্বের এক সফল বাস্তবতা। বর্তমান বিশ্বে ইসলামী ব্যাংকিং সর্বাধুনিক আর্থিক সেবা প্রদান করে যাচ্ছে। দেশের ২৫ শতাংশ ব্যাংকিং ইসলামী ব্যাংকিং এর আওতায় পরিচালিত হচ্ছে।’ শরী‘আহ নীতির পরিপালন ইসলামী ব্যাংকিং এর মূল ভিত্তি উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘শরী‘আহ ব্যাংকিং করতে হলে প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী-কর্মকর্তা, গ্রাহক ও স্টেকহোল্ডারসহ সংশ্লিষ্ট সকলের ব্যক্তিগত জীবনাচরণ ও পেশাদারিত্বের ক্ষেত্রে সামাজিক ও মানবিক মূল্যবোধ, কল্যাণকামিতা, আন্তরিকতা, নিষ্ঠা, দায়বদ্ধতা, স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও পরিপালন সংস্কৃতি লালন করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, ইসলামী ব্যাংকিং পরিচালনায় শরিয়া নীতি ও প্রচলিত আইন দুটোই পরিপালিত হয়। শরিয়া নীতির পরিপালন ইসলামী ব্যাংকিং-এর অগ্রাধিকার প্রাপ্ত কোনো বিষয় নয় বরং বাধ্যতামূলক।  এর লক্ষ্য ও কর্মকাণ্ডে এমন কোনো উপাদান নেই যা ইসলাম অনুমোদন করে না। ইসলামী ব্যাংকিং সকল ক্ষেত্রেই পরিপালনকে গুরুত্ব দেয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, পরিপালনহীনতা ব্যাংকিং খাতকে ধ্বংস করে দিতে পারে। ব্যাংকিং কার্যক্রমে যথাযথ শরিয়া পরিপালনের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট সকলকে আরো বেশি সতর্কতা অবলম্বনের জন্য আহ্বান জানান তিনি। 

মো. মাহবুব উল আলম বলেন, ইসলামী ব্যাংকিং শরিয়ার নীতির সাথে আপস না করে একটি সার্বজনীন ব্যাংকিং ব্যবস্থা। শরিয়ার নীতিমালায় অটুট থেকে এই ব্যাংকিং ব্যবস্থা বিশ্বমঞ্চে সফলতার স্বীকৃতি লাভ করেছে। ইসলামী ব্যাংকিং হালাল গ্রহণ ও হারাম বর্জনের ব্রান্ড ইমেজ তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে। তিনি বলেন, ইসলামী ব্যাংক ব্যবস্থায় শরিয়া নীতি অপরিহার্য বিষয়। শরিয়া নীতির প্রতি মানুষের আস্থা ও ভালোবাসার কারণেই ইসলামী ব্যাংক ব্যবস্থা আজ ব্যাংকিং খাতের মডেলে পরিণত হয়েছে। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা