kalerkantho

মঙ্গলবার। ২০ আগস্ট ২০১৯। ৫ ভাদ্র ১৪২৬। ১৮ জিলহজ ১৪৪০

আইইউবিতে ‘গ্রিণ জিনিয়াস’র বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ মার্চ, ২০১৯ ১৭:৩৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আইইউবিতে ‘গ্রিণ জিনিয়াস’র বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ

তরুণদের পরিবেশ রক্ষা আন্দোলনে সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ (আইইউবি)-এর গ্রিণ প্ল্যানেট ক্লাবের আয়োজনে এবং স্কুল অব এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স অ্যান্ড ম্যানেজমেন্টের সহযোগিতায় হয়ে গেল ‘গ্রিণ জিনিয়াস সিজন ২’।

রাজধানীর বসুন্ধরায় আইইউবি অডিটোরিয়ামে মঙ্গলবার ক্লাবের বাৎসরিক এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

‘গ্রিণ জিনিয়াস’ আয়োজনের মূল লক্ষ্য স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের প্রকৃতি ও পরিবেশ বিষয়ে সচেতন করার মাধ্যমে পরিবেশ রক্ষায় ভবিষ্যত নেতৃত্ব তৈরি করা। যেন এ বিশ্ব হতে পারে সকলের জন্য বাসযোগ্য ভূমি।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন একুশে ও স্বাধীনতা পদক প্রাপ্ত, প্রখ্যাত কৃষি ব্যক্তিত্ব শাইখ সিরাজ। এতে সভাপতিত্ব করেন স্কুল অব এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স অ্যান্ড ম্যানেজমেন্টের ডিন ড. মো. আব্দুল খালেক। আয়োজনে উপস্থিত থেকে আরো বক্তৃতা করেন স্কুল অব বিজনেসের ডিন অধ্যাপক মো. আমিনুল করিম এবং অধ্যাপক জয়নাল আবেদীন।

প্রতিযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে আইইউবি’র তাহসিন রহমান। স্কুল ও কলেজ বিভাগ থেকে চ্যাম্পিয়ন হয় সাউথ ব্রিজ স্কুলের ফাইরুজ সামিয়া। বিজয়ী হিসেবে তাদের হাতে তুলে দেওয়া হয় একটি করে সনদ, ক্রেস্ট ও নগদ ২৫ হাজার টাকা।

প্রধান অতিথি শাইখ সিরাজ তার বক্তব্যে প্রকৃতি ও পরিবেশ সম্পর্কে নিজের অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন। শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানান নিজের উদভাবনীকে শক্তিকে সমাজের কল্যাণে কাজে লাগানোর। সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোয় গবেষণার প্রতি আরো জোর দেওয়ার পাশাপাশি নতুন আবিস্কারগুলো সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে মানবকল্যাণে কাজে লাগানোরও সুপারিশ করেন দেশ বরেণ্য এই ব্যক্তিত্ব।

দেশের প্রাকৃতিক সম্পদ বিশেষ করে সুপেয় পানি রক্ষায় সকলকে আরো মিতব্যয়ী হওয়ার আহ্বান জানান অধ্যাপক আব্দুল খালেক। এক পরীক্ষার কথা উল্লেখ করে তিনি আরো জানান, ট্যালকম পাউডারের ব্যবহার জরায়ুর ক্যান্সারের ঝুঁকি ৮০ ভাগ পর্যন্ত বাড়িয়ে দেয়। প্রতিযোগিতায় অসাধারণ সব উদভাবনী প্রদর্শনের জন্য অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের ধন্যবাদ জানান অধ্যাপক খালেক।

আগামীতে বহু চ্যালেঞ্জ রয়েছে উল্লেখ করে এগুলো মোকাবিলায় সমন্বিত শক্তি কাজে লাগানোর পরামর্শ দেন অধ্যাপক আমিনুল করিম। সমাজের উন্নয়ন হয় না এমন কোনো ব্যবসায়িক উদ্যোগ বা প্রকল্প থেকে সকলকে দূরে থাকারও আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তব্য দেন আইইউবি’র এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সের বিভাগীয় প্রধান ড. আয়াজ রাব্বানী। আইইউবি’র বিভিন্ন স্কুলের ডিন, সিনিয়র শিক্ষক ও প্রশাসনিক কর্মকর্তা এবং বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থী জমকালো এ আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা