kalerkantho

শনিবার  । ১৯ অক্টোবর ২০১৯। ৩ কাতির্ক ১৪২৬। ১৯ সফর ১৪৪১                     

রন্ধনশিল্পীদের সম্মাননা জানাল এসিআই পিওর

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ মার্চ, ২০১৯ ১৭:৫৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রন্ধনশিল্পীদের সম্মাননা জানাল এসিআই পিওর

আন্তর্জাতিক নারী দিবস ২০১৯ উপলক্ষে 'Empowering women in Culinary industry' শীর্ষক বৈঠকে দেশের রন্ধরশিল্পের পথিকৃতদের স্বীকৃতি জানাল দেশের অন্যতম সেরা ব্র্যান্ড এসিআই পিওর। দেশের রন্ধনশৈলিকে শিল্পের মর্যাদায় অধিষ্ঠিত করতে যে সকল মহিয়সী নারী কয়েক দশক ধরে অবদান রেখে এসেছেন তাদের সম্মাননাস্বরূপ এই অনুষ্ঠান আয়োজন করে এসিআই।

গৃহের স্বল্প পরিসরে শুরু হওয়া রন্ধনশিল্পকে দীর্ঘসময় ধরে লালন করে ধীরে ধীরে একটি মজবুত অর্থনৈতিক শিল্পকর্ম হিসাবে অধিষ্ঠিত করতে অবদান রেখে এসেছেন দেশের কিছু গুণী নারী উদ্যোক্তাবৃন্দ। তাদের হাত ধরেই ছোট পরিসরের ঘরোয়া ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে আজ এক বৃহৎ শিল্প হিসাবে দেশের রন্ধনশিল্প প্রতিষ্ঠা লাভ করেছে। অনেকেই একটি ক্ষুদ্র ব্যবসা থেকে শুরু করে আজ অনেক হোটেল-রেস্টুরেন্ট প্রতিষ্ঠা করেছেন যা শুধু দেশেই নয় দেশের গণ্ডি পেরিয়ে স্বীকৃতি পেয়েছে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে। শুধু তাই নয়, দেশের নতুন প্রজন্মের মধ্যে এই শিল্পকে ছড়িয়ে দিতে অনেকেই নিজ উদ্যোগে চালু করেছেন রন্ধন শিক্ষালয় যা ব্যাপকভাবে সাড়া ফেলেছে নতুন প্রজন্মের মধ্যে।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের রন্ধনশিল্পের পুরোধা প্রয়াত সিদ্দিকা কবিরকে গভীর শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করা হয় এবং মরণোত্তর সম্মাননা প্রদান করা হয়। দেশের কালিনারী শিল্পের অগ্রদূত অন্যান্য রন্ধন বিশেষজ্ঞদের মধ্যে কল্পনা আক্তার, কেকা ফেরদৌসি, নাহিদ ওসমান ও নাজমা আক্তারকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। এ ছাড়াও এ শিল্পের প্রসারে বিভিন্ন হোম বেকার্স, হোম মেইড ফুড, হোম ক্যাটারিং ও অনলাইন ফুড সেলারদের অবদান স্মরণ করা হয়।

আমন্ত্রিত রন্ধনশিল্পীবৃন্দ এসিআইয়ের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান ও এ শিল্পের বিকাশে এসিআই এর সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন এবং এসিআই কর্তৃপক্ষ তাদের পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। গতকাল ৬ মার্চ ২০১৯ তারিখে এসিআই সেন্টারের কনফারেন্স হলে আয়োজিত অনুষ্ঠানটির উদ্বোধন কারেন এসিআই কনজ্যুমার ব্র্যান্ডস এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর জনাব সৈয়দ আলমগীর। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কম্পানির ব্যবসা পরিচালক অনুপ কুমার সাহা, বিভিন্ন ব্যবসায়ের বিজনেস ম্যানেজারগণ ও এসিআইয়ের নারী কর্মকর্তাবৃন্দ।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা