kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অক্টোবর ২০১৯। ৩০ আশ্বিন ১৪২৬। ১৫ সফর ১৪৪১       

ঝুলে থাকা অক্ষর কি জানাবে ইতিহাস?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৫:৫১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঝুলে থাকা অক্ষর কি জানাবে ইতিহাস?

প্রতিবছর বাঙালি জাতির কাছে একুশে ফেব্রুয়ারি অনন্য আবেদন নিয়ে হাজির হয়। মাতৃভাষার মর্যাদা রক্ষার জন্য আমরা প্রাণ বিলিয়ে দিয়েছি, তাই এর মর্যাদা অক্ষুণ্ণ রাখার জন্য সচেতন প্রয়াস জরুরি- এই বোধ সবাইকে উদ্বেলিত করে। মাতৃভাষাকে ভালোবাসা জানানোর সদিচ্ছা থেকে প্রতিবছর কিছু না কিছু কর্মকাণ্ড আমরা দেখি। অক্ষর নিয়ে, বর্ণমালা নিয়ে আমাদের নাড়াচাড়া সেই ভালোবাসারই বহিঃপ্রকাশ। একেকটি বর্ণমালাকে ঘিরে আমাদের অফুরান আবেগ। বাকযন্ত্র থেকে যে পবিত্র ধ্বনি বেরিয়ে আসে, যে ধ্বনি আমাদের হাসি-কান্না-বিদ্রোহ ভালোবাসাকে ধারণ করে, যে অক্ষর চর্যাপদের পুঁথি থেকে উঠে এসে শতাব্দী কাল পেরিয়ে যে ভাষা চলছে বহতা নদীর মতো তার প্রতি ভালোবাসার প্রকাশের রূপটাও বোধ হয় একটু বিচিত্রই হয়। সেই বিচিত্র ভালোবাসার প্রকাশ দেখা গেছে গুলশান কিংবা বনানীর ব্যস্ত সড়কে। কে বা কারা বিভিন্ন অক্ষর ঝুলিয়ে রেখে গেছে গাছের ডালে, ল্যাম্পোস্টের খুঁটিতে। 

অক্ষরগুলোর নিচে লেখা আছে- 
উল্লাস নাকি হাহাকার/ বিদ্রোহ অথবা চিৎকার/ কোন ইতিহাস লুকিয়ে আছে এই নিষ্প্রাণ অক্ষরের ভেতর? আমরা কি জানতে পারব? অক্ষরের নিচে গুডলাকের ফেসবুক পেইজের লিংক দেওয়া আছে। খুব সম্ভবত ভাষা দিবস উপলক্ষে গুডলাক স্টেশনারি নতুন কোনো উদ্যোগ নিতে চলেছে। ব্যস্ত সড়কে বিরাট বিরাট অক্ষর ঝুলতে দেখে ইতিমধ্যে পথচারীসহ সাধারণ মানুষ কৌতূহল প্রকাশ করেছে। শেষ পর্যন্ত ব্যাপারটা কী দাঁড়ায় তা নিয়ে নেটিজনদের মধ্যেও ব্যাপক আগ্রহ দেখা গেছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা