kalerkantho

সোমবার । ২৪ জুন ২০১৯। ১০ আষাঢ় ১৪২৬। ২০ শাওয়াল ১৪৪০

উদ্বোধন

কমার্স কলেজের বিজ্ঞানযাত্রা

১৫ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কমার্স কলেজের বিজ্ঞানযাত্রা

প্রস্তুতি চলছিল বেশ কয়েক বছর ধরেই। এবার আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করল ঢাকা কমার্স কলেজের বিজ্ঞান শাখা। শনিবার সকালে কলেজটির বিজ্ঞান শাখা ও এর একাডেমিক ভবনের উদ্বোধন করেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক জিয়াউল হক। আরো উপস্থিত ছিলেন কলেজ পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক সফিক আহমেদ সিদ্দিক, অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) শফিকুল ইসলাম, পরিচালনা পর্ষদের সদস্য এ এফ এম সরওয়ার কামাল, কলেজের প্রথম অধ্যক্ষ শামছুল হুদাসহ অনেকে।

কিন্তু কমার্স কলেজে বিজ্ঞান শাখা কেন? অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তার উত্তর দিয়েছেন এ এফ এম সরওয়ার কামাল, ‘বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ছাড়া ব্যবসা-বাণিজ্য চলে না। একজন ব্যবসায়ী হতে গেলে, ভালো পরিচালক হতে গেলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে।’ সফিক আহমেদ সিদ্দিক বিজ্ঞান শিক্ষার আরো একটি প্রয়োজনীয়তার কথা তুলে ধরেন, ‘শ্রমবাজারে দক্ষ জনশক্তি তৈরির জন্যও বিজ্ঞান শিক্ষা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই কমার্স কলেজ উচ্চ মাধ্যমিকে বিজ্ঞান শাখা চালু করেছে। এ ছাড়া সিএসইতে অনার্স কোর্স চালু করা হয়েছে। ভবিষ্যতে বিজ্ঞানভিত্তিক আরো কিছু অনার্স কোর্স চালু করা হবে।’ আর শফিকুল ইসলাম বলেন কলেজের পরিসর বড় করার স্বপ্নের কথাও, ‘কমার্স কলেজে ব্যবসায় শিক্ষার সব শাখায়ই পাঠদান করা হচ্ছে। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এই শাখার চারটি বিষয়ে অনার্সে পড়ানো হয়। আমরা চারটিই পড়াচ্ছি। বিজ্ঞান শাখা চালু করায় আমরা যেমন উচ্চ মাধ্যমিকে বেশি শিক্ষার্থীদের পড়ার সুযোগ দিতে পারব, তেমনি অনার্সে আরো অন্তত দশটি বিষয় চালু করতে পারব।’

কলেজটির ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এস এম আলী আজম জানান, কলেজটির বিজ্ঞান শাখায় ভর্তি কার্যক্রম এরই মধ্যে শুরু হয়েছে। ভর্তির ন্যূনতম যোগ্যতা ধরা হয়েছে জিপিএ ৪.০০। আসনসংখ্যা এক হাজার। একাডেমিক কার্যক্রম শুরু হবে আগামী ১ জুলাই থেকে। বিজ্ঞানের বিশেষায়িত বিভাগগুলোর জন্য নতুন শিক্ষকরাও যোগ দেবেন তখনই। নিয়োগের সব প্রক্রিয়াও চূড়ান্ত করা হয়েছে। আপাতত ১০ জনের মতো নতুন শিক্ষক নিয়োগের চিন্তাভাবনা রয়েছে। তবে প্রয়োজন হলে আরো শিক্ষক নেওয়ার প্রস্তুতিও নিয়ে রাখা হয়েছে। কলেজটির দ্বিতীয় ভবনে এত দিন ধরে কার্যক্রম চালিয়ে আসা বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজি (বিইউবিটি) বেশ কিছুদিন ধরেই পর্যায়ক্রমে রূপনগরে নিজস্ব ক্যাম্পাসে কার্যক্রম স্থানান্তরিত করে আসছিল। দুই মাসের মধ্যে তারা পুরোপুরি নিজস্ব কাম্পাসে চলে যাবে। তাই এত দিন তাদের ব্যবহার করা ভবনটিই কমার্স কলেজের বিজ্ঞান ভবন হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছে।

নাবীল অনুসূর্য

 

মন্তব্য