kalerkantho

সোমবার । ২৪ জুন ২০১৯। ১০ আষাঢ় ১৪২৬। ২০ শাওয়াল ১৪৪০

ক্যাম্পাস টিপস

প্রযুক্তি যখন পড়ার সঙ্গী

স্মার্টফোনটা দিন দিন সময় নষ্টের যন্ত্র হয়ে দাঁড়ালেও ওয়েবসাইট থেকে কঠিন বিষয় সহজে শিখতে বা ক্লাসের নোট-লেকচার কিংবা অ্যাসাইনমেন্ট টাইপ করতে কম্পিউটার-ল্যাপটপ লাগবেই। তবে এসব ব্যবহারেও হতে হবে কৌশলী। জানাচ্ছেন ফয়সল আবদুল্লাহ

২৪ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রযুক্তি যখন পড়ার সঙ্গী

ব্যাকআপ

ল্যাপটপ বা কম্পিউটারে গাদা গাদা ক্লাস লেকচার, নোট বা টিউটরিয়াল ভিডিও রাখা আছে। কিন্তু এই হার্ডডিস্কের ওপর কি আদৌ ভরসা করা যায়? যেকোনো মুহূর্তে হতে পারে ক্র্যাশ আর তখনই মাথায় হাত দিয়ে বসে পড়তে পারো তুমি। এ ধরনের ঝামেলা থেকে বাঁচিয়ে দিতে পারে ক্লাউড স্টোরেজ। গুগল ড্রাইভে একেবারে ফ্রিতে তুমি রাখতে পারো ১৫ গিগাবাইট তথ্য। আবার ড্রপবক্সের ৫ গিগাবাইট তো আছেই। দরকারি নোট আর পাওয়ার পয়েন্টের ফাইলের ব্যাকআপ রাখতে এদের জুড়ি নেই। তবে ভারি ভিডিও বা সিনেমা রেখে আবার এসব স্টোর ভর্তি করে ফেলো না।

 

ম্যালওয়্যার থেকে সাবধান

একটি ভুলের জন্যও কম্পিউটারে হামলা করে বসতে পারে র্যানসামওয়্যারের মতো প্রলয়ংকরী ভাইরাস। সব ফাইল নষ্ট করতে যার জুড়ি নেই। এর বাইরেও ফাইল ‘করাপ্ট’ তথা নষ্ট করার মতো ভাইরাসের কমতি নেই ইন্টারনেটের দুনিয়ায়। এ জন্য উইন্ডোজ-৮ বা ১০ সংস্করণ যারা ব্যবহার করছ, তারা উইন্ডোজ ডিফেন্ডারটিকে আপডেট রাখতে ভুলো না। এর সঙ্গে আবার উটকো ম্যালওয়্যার থেকে বাঁচতে ডিফেন্ডারের সঙ্গে ম্যালওয়্যারবাইটকে সমন্বয় করে নিতে পারো। নিজের কাছে ঝামেলার মনে হলে তোমার কোনো টেক-পাগল বন্ধুর সাহায্য নাও।

 

ক্যালেন্ডার

পড়াশোনার দৈনিক রুটিন ছাড়াও বার্ষিক নানা কাজকর্মেরও একটা রুটিনের দরকার হয়। এ কাজে সাধারণ ক্যালেন্ডারে দাগাদাগি করে কাজ হবে না। গুগল ক্যালেন্ডারই বুঝবে তোমার দিনক্ষণ মনে রাখা ও সে অনুযায়ী তোমাকে সতর্ক করে দেওয়ার প্রয়োজনীয়তা। তাই ফোন বা কম্পিউটারে যেকোনো শিডিউল ঠিক করতে সাহায্য নাও এই ফ্রি ক্যালেন্ডারের।

 

গোছানো ফোল্ডার

গুগল ড্রাইভ ইনস্টল তো করলে, এবার ড্রাইভটাকে সাজানোর পালা। ব্যাপারটাকে খুব বেশি জটিল করতে যেয়ো না। ক্লাসের জন্য একটি ফোল্ডার করে তাতে প্রতিটি বিষয়ের ফোল্ডার ও প্রতিটি অধ্যায়ের আলাদা করে সাব-ফোল্ডার বানিয়ে রাখতে পারো। আবার ক্লাসের বাইরের বিষয়গুলোর জন্য যেমন অলিম্পিয়াড, বিতর্ক, ফটোগ্রাফি—এসবের ফোল্ডার রাখবে আলাদা। একই ফোল্ডার বা ডেস্কটপে ইলেকট্রন-সংক্রান্ত ফাইলের পাশাপাশি যদি উদ্ভিদকোষের ফাইল রাখো, তবে দরকারি ফাইল খুঁজতেই চলে যাবে অনেকটা সময়। আবার একটা পড়তে গিয়ে আরেকটা বিষয় মাথায় এসেও দিতে পারে খোঁচা।

মন্তব্য