kalerkantho

রবিবার । ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১০ রবিউস সানি ১৪৪১     

হোটেল কর্মচারীকে জাবি ছাত্রলীগ কর্মীর মারধর

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২৩ মার্চ, ২০১৯ ২১:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হোটেল কর্মচারীকে জাবি ছাত্রলীগ কর্মীর মারধর

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) বটতলার খাবারের হোটেলের এক কর্মচারীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে জাবি শাখা ছাত্রলীগের কর্মীর বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত ছাত্রলীগ কর্মী তৌফিক আহমেদ বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ৪৩তম ব্যাচ ও বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলের আবাসিক শিক্ষার্থী। 

আজ শনিবার (২৩ মার্চ) দুপুর ১টার দিকে বটতলার নুরজাহান হোটেলে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের মাধ্যমে জানা গেছে, শুক্রবার রাতে নূরজাহান হোটেল থেকে বান্ধবীর জন্য খাবার নেন তৌফিক। সেই খাবার খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন তার বান্ধবী। শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নূরজাহান হোটেলের মালিক মো. ফরমান খানের সঙ্গে এ প্রসঙ্গে কথা বলার সময় একই দোকানের কর্মচারী রমজান আলী দোকানের খাবারের জন্য গ্রাহককে ডাকতে ডাকতে তাদের আলাপচারিতার কাছে গেলে তাকে চড়-থাপ্পড় মারেন তৌফিক। এ সময় তৌফিককে রাগান্বিত হয়ে তাকে গালাগাল করেন।

মারধরের শিকার রমজান আলী বলেন, আমাকে বিনা অপরাধে মারা হয়েছে, আমি এর বিচার চাই। যে যার খুশিমতো দোকানের কর্মচারীদের গায়ে হাত তুলে কেউ কিছু বলে না।

অভিযুক্ত তৌফিক আহমেদ বলেন, দুপুরে আমি দোকানের মালিকের সঙ্গে কথা বলতে দোকানের সামনে যাই। এ সময় রমজান এদিকে আসলে তাকে ধাক্কা দিয়ে পাঠিয়ে দেই। মারধরের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

এ প্রসঙ্গে ছাত্রলীগের সভাপতি মো. জুয়েল রানা বলেন, বটতলার খাবারের মান নিয়ে অনেক প্রশ্ন আছে। শিক্ষার্থীদের এ বিষয়ে সোচ্চার হওয়া উচিৎ। তবে কর্মচারীদের গায়ে হাত তোলাটা কাম্য নয়। এরকম কোনো ঘটনা ঘটে থাকলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ফিরোজ-উল-হাসান বলেন, এখন এরকম অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা