kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৬ কার্তিক ১৪২৭। ২২ অক্টোবর ২০২০। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

আকাশপথে ভ্রমণ নিরাপদ মনে করেন ৬৭% মানুষ

*৪৭.১% ভ্যাকসিন আসার আগে ভ্রমণে যাবেন না *যাত্রীদের আস্থা ফিরিয়ে আনাই এয়ারলাইনের জন্য চ্যালেঞ্জ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২২:০৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আকাশপথে ভ্রমণ নিরাপদ মনে করেন ৬৭% মানুষ

করোনা মহামারীকালে দেশের ভেতরে আকাশ ভ্রমণকেই সর্বাধিক নিরাপদ হিসেবে বিবেচনা করেন বাংলাদেশি ভ্রমণকারীরা। ভ্রমণ ও পর্যটন বিষয়ক প্রকাশনা-দি বাংলাদেশ মনিটর পরিচালিত এক জরিপে দেখা গেছে, ৬৬.৭% মানুষ আকাশপথে ভ্রমণের পক্ষে মত দিয়েছেন। এ ছাড়া ২৩.৩% রেল এবং ১০% সড়ক যাতায়াতের পক্ষে মত দিয়েছেন। ৩৭.৭% মনে করেন বর্তমান সময়ে ভ্রমণকারীদের আস্থা পুনরুদ্ধার এয়ারলাইনগুলোর জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। অবশ্য ৩৩.৫% স্বাস্থ্য ও স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ এবং ২৮.৮% ভ্রমণ বিধিনিষেধ পালনকে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ বলে মনে করছেন।

আজ বুধবার এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে গবেষণার ফলাফল তুলে ধরা হয়।

গত ১ থেকে ২৫ গেপ্টেম্বও অইঔঠইইে পরিচালিত এই জরিপে বিভিন্ন বয়স গ্রুপের চার হাজার ৪৫২ জন ভ্রমণকারী অংশগ্রহণ করেন-২৬% এর বয়স ২০-৩০ বছর, ২২% এর ৩১-৪০ বছর, ২০% এর ৪১-৫০ বছর, ১৮% এর ৫১-৬০ বছর এবং অবশিষ্টরা ষাটোর্ধ বয়সের। জরিপে অংশগ্রহণকারীদের ৮৭% ব্যবসা এবং ১০% সার্ভিস পেশার সঙ্গে যুক্ত। অংশগ্রহণকারীদের ৩% শিক্ষার্থী।

৪৯.৯% উচ্চ ব্যয়কে বাংলাদেশে আকাশ ভ্রমণের ক্ষেত্রে এই মূহুর্তে উদ্বেগের সবচেয়ে বড় কারণ হিসেবে চিহ্নিত করেছেন। ৩১.৪% উদ্বেগের কারণ হিসেবে ব্যক্তিগত নিরাপত্তা এবং ১৮.৭% বিমানবন্দরের প্রটোকল ব্যবস্থার কথা উল্লেখ করেছেন। ৫৭% ভ্রমণকারী দেশীয় বিমানসংস্থাগুলো কর্তৃক অনুসৃত স্বাস্থ্যবিধি ব্যবস্থাকে যথোপযুক্ত বলে মনে করেন, ৩০.৭% মোটামুটি সন্তোষজনক এবং ১২.৩% গৃহীত ব্যবস্থা ততোটা ভালো মনে করেন না।

এই মূহুর্তে ভ্রমণের উদেশ্য নিয়ে বলতে গিয়ে ৩৫.৮% অংশগ্রহকারী ব্যবসা সংক্রান্ত্র কাজ, ৩০.৫% অবকাশ যাপন এবং ৩৩.৭% পারিবারিক কারন বলে উল্লেখ করেন। দেশের ভেতরে ৩২.৯% ইতোমধ্যে ভ্রমণ করেছেন এবং ৪১.৬% আগামী তিন মাসের মধ্যে ভ্রমণের পরিকল্পনা করছেন। অবশ্য, ২৫.৫% চলতি বছরে ভ্রমণের কোনো চিন্তাই করছেন না।

৫৩.৫% অংশগ্রহনকারী বর্তমান সময়ে ছুটি কাটাতে বিদেশ ভ্রমণের কথা ভাবছেন। ২৯.৪% ব্যবসায়িক কাজে ও ১৭.১% চিকিৎসার জন্য বিদেশ ভ্রমণ করতে চান। মহামারী কেটে গেলে ৫৯.৭% অবকাশ যাপনের জন্য এশীয় দেশগুলোকেই বেছে নেবেন বলে জানান। তবে, ৩২.১% ইউরোপ এবং ৮.২% আমেরিকা ভ্রমণের কথা বলেছেন।

জরিপে অংশগ্রহনকারীদের ৩৯.৬% ভারতকে পছন্দের মেডিক্যাল গন্তব্য হিসেবে বিবেচনা করেন। ৩৭.৭% থাইল্যান্ড এবং ২৮.৭ সিঙ্গাপুরের কথা উল্লেখ করছেন।

কত তাড়াতাড়ি বিদেশ ভ্রমণের কথা ভাবছেন, এমন প্রশ্নের উত্তরে ৪৭.১% জানান যে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন আসার আগে তারা এজাতীয় কোন ভ্রমণে যাবেন না, ৪৩.৩% পরবর্তী তিন মাসের কথা বলেছেন। অবশ্য, ৯.৬% ইতোমধ্যে বিদেশ ভ্রমণ সম্পন্ন করেছেন।

কীভাবে এই মহামারীকালে এয়ারটিকিট কিনতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করছেন এমন প্রশ্নের উত্তরে ৬৮.৩% অনলাইন ট্রাভেল এজেন্সির পক্ষে মত দিয়েছেন, ২২.৪% অবশ্য এখনও নিয়মিত ট্রাভেল এজেন্সিকেই পছন্দ করছেন। ৯.৩% সরাসরি এয়ারলাইন থেকে টিকিট ক্রয় করতে বেশী আগ্রহী।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা