kalerkantho

বুধবার । ৫ কার্তিক ১৪২৭। ২১ অক্টোবর ২০২০। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ভারত থেকে ব্যবসা গুটিয়ে নিচ্ছে বিশ্বখ্যাত বাইক নির্মাতা হার্লে-ডেভিডসন

অনলাইন ডেস্ক   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২১:৫১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভারত থেকে ব্যবসা গুটিয়ে নিচ্ছে বিশ্বখ্যাত বাইক নির্মাতা হার্লে-ডেভিডসন

হার্লে-ডেভিডসনের তৈরি মোটরবাইক, ফাইল ছবি।

ভারত থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে ব্যবসা গুটিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ব বিখ্যাত আমেরিকান বাইক প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান হার্লে-ডেভিডসন। সংস্থাটি ভারতে বাইক বিক্রি ও উৎপাদনসহ সবরকম প্রক্রিয়া বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানটিকে নতুন করে গুছিয়ে তোলার অংশ হিসেবেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

হার্লে-ডেভিডসনের সভাপতি এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জোকেন জিটজিৎ জানান, 'এই বছর নতুন করে সংস্থাকে সাজাতে মোট ১৬৯ মিলিয়ন ডলার ব্যয় করা হচ্ছে।' এই প্রখ্যাত মোটরসাইকেল ব্র্যান্ডটি আগামী ১২ মাসের মধ্যে পুনর্গঠনের কাজ শেষ করবে বলেই মনে করছে। এর ফলে ভারতে হার্লে-ডেভিডসন প্রায় ৭০ জন কর্মচারীকে চাকরি হারাতে হবে। তবে এদের ভাগ্যে কী আছে সে ব্যাপারে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে এখনো স্পষ্ট কিছু জানানো হয়নি।

হার্লে-ডেভিডসন ইন্ডিয়া একটি প্রেস বিবৃতিতে জানিয়েছে, সংস্থা তাদের গ্রাহকদের সেবা অব্যাহত রাখতে বিকল্প পথগুলোর মূল্যায়ন করছে। সংস্থা ভারতে উৎপাদন যেমন বন্ধ করবে, তেমনি গুরুগ্রামের দপ্তরটির বহর উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করবে। ভারতে ব্র্যান্ডটি কীভাবে তার গ্রাহক ও ক্রেতাদের সহায়তা করবে সে বিষয়ে এখনো কোনোকিছু চূড়ান্ত ঘোষণা করেনি। হার্লে-ডেভিডসন ইন্ডিয়া জানিয়েছে, যে সমস্ত ডিলার নেটওয়ার্ক চুক্তির মেয়াদের মধ্যে রয়েছেন তারাই গ্রাহকদের সেবা প্রদান করবে।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে আমেরিকান মোটরসাইকেল ব্র্যান্ডের বিক্রয় বিশ্বজুড়ে বেশ কয়েকটি বাজারে হ্রাস হওয়ার কারনে হার্লে-ডেভিডসনের ওপর চাপ ছিল। ভারতকে এমন একটি বাজার বলে মনে হচ্ছে, যেখানে ২০০৯ সাল থেকে হার্লে-ডেভিডসন উপস্থিত ছিল এবং যেখানে ২০১০ সালের জুলাই মাসে প্রথম হার্লে রাস্তায় নেমেছিল। গত আর্থিক বছরে ভারতে হার্লে-ডেভিডসন ইন্ডিয়া ২,৫০০-এর কম বাইক বিক্রি করেছিল। চলতি ২০২০ সালের এপ্রিল-জুনের মধ্যে ভারতে ১০০-এর মতো বাইক হার্লে বিক্রি করতে পেরেছে। এই বেহাল দশার কারণেই এবার ভারত থেকে ব্যবসা গোটানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রখ্যাত এই প্রতিষ্ঠানটি।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা