kalerkantho

রবিবার । ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৩১  মে ২০২০। ৭ শাওয়াল ১৪৪১

করোনায় দক্ষিণ এশিয়ার ক্ষতি হবে ১৮ লাখ কোটি টাকা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ মে, ২০২০ ১১:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনায় দক্ষিণ এশিয়ার ক্ষতি হবে ১৮ লাখ কোটি টাকা

প্রাণহানির পাশাপাশি করোনা সবচেয়ে বড় আঘাত হেনেছে মানুষের আয়ে। উন্নত থেকে উন্নয়নশীল সব দেশেই এতে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এ সংকটে শুধু এশিয়ার মানুষের আয় কমেব ৩৫৯ থেকে ৫৫০ বিলিয়ন ডলার। প্রতি ডলার ৮৫ টাকা ধরে এর পরিমাণ দাঁড়ায় ৩০ লাখ ৫১ হাজার ৫০০ কোটি টাকা থেকে ৪৬ লাখ ৭৫ হাজার কোটি টাকা। যা বৈশ্বিক মুজরি হ্রাসের ৩০ শতাংশ। করোনার সম্ভাব্য অর্থনৈতিক ক্ষতি নিয়ে এক মূল্যায়নে এমন তথ্য জানিয়েছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)।

সংস্থা জানায়, করোনাভাইরাসে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান এসব দেশে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করায় দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর অর্থনৈতিক ক্ষতি হবে ১৪২ থেকে ২১৮ বিলিয়ন ডলার। বাংলাদেশী মুদ্রায় এ ক্ষতি দাঁড়ায় ১২ লাখ ৭ হাজার কোটি টাকা থেকে ১৮ লাখ ৫৩ হাজার কোটি টাকা। জিডিপি কমবে ৩.৯ থেকে ৬.০ শতাংশ। 

গত শুক্রবার প্রকাশিত এ প্রতিবেদনে এডিবি জানায়, করোনা সংকটের কারণে বিশ্ব অর্থনীতি হারাবে ৫.৮ থেকে৮.৮ ট্রিলিয়ন ডলার। যা বৈশ্বিক জিডিপির ৬.৪ থেকে ৯.৭ শতাংশ।  এশিয়ার দেশগুলোতে যদি লকডাউন ৩ মাস থাকে তবে এশিয়া ও প্যাসিফিক অঞ্চলের দেশগুলোর অর্থনৈতিক ক্ষতি হবে ১.৭ ট্রিলিন ডলোরের মতো। আর এ লকডাউন দীর্ঘ ৬ মাস থাকেলে ক্ষতি হবে ২.৫ ট্রিলিয়ন ডলার। যা বৈশ্বিক ক্ষতির ৩০ শতাংশ। সংস্থাটি এবারের পূর্বাভাসে বৈশ্বিক অর্থনীতিতে করোনাজনিত ক্ষতির পরিমাণ এপ্রিলে প্রকাশিত ‘বিশ্ব অর্থনৈতিক পূর্বাভাস’ প্রতিবেদনের তুলনায় দ্বিগুণ প্রাক্কলন করেছে।

এডিবি জানায়, এ লকডাউনে বিশ্বে শ্রম আয় ১.২ ট্রিলিয়ন থেকে ১.৮ ট্রিলিয়ন পর্যন্ত কমে যাবে। আর এশিয়ায় আয় কমবে ৩৫৯ থেকে ৫৫০ বিলিয়ন ডলার। প্রতি ডলার ৮৫ টাকা ধরে এর পরিমাণ দাঁড়ায় ৩০ লাখ ৫১ হাজার ৫০০ কোটি টাকা থেকে ৪৬ লাখ ৭৫ হাজার কোটি টাকা। যা বৈশ্বিক মুজরি হ্রাসের ৩০ শতাংশ। করোনার উৎপত্তিস্থল চীনের অর্থনৈতিক ক্ষতি দাঁড়াবে ১.১ ট্রিলিয়ন থেকে ১.৬ ট্রিলিয়ন ডলার। 

সূত্র: ইনডিয়ান এক্সপ্রেস

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা