kalerkantho

বুধবার । ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৫ নভেম্বর ২০২০। ৯ রবিউস সানি ১৪৪২

ভালোবাসা দিবস ঘিরে বাণিজ্যে চাঞ্চল্য

♦ অর্থনীতিতে অবদান প্রায় হাজার কোটি টাকা ♦ প্রায় ২০০ কোটি টাকার ফুল বিক্রির সম্ভাবনা

মাসুদ রুমী    

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০৯:৩২ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



ভালোবাসা দিবস ঘিরে বাণিজ্যে চাঞ্চল্য

বিশ্বের অন্য দেশের সঙ্গে তাল মিলিয়ে গত কয়েক দশকে বাংলাদেশে ভ্যালেনটাইনস ডে বা ভালোবাসা দিবস ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। ১৪ ফেব্রুয়ারি এই দিবসকে কেন্দ্র করে নানা রকম বাণিজ্যও গড়ে উঠেছে, অর্থনীতিতে যার অবদান দিনকে দিন বাড়ছে। খাতসংশ্লিষ্টরা বলছেন, ফুল, চকোলেট, কেক, জুয়েলারি, পোশাক, রেস্টুরেন্ট, গেজেট, স্মার্ট ডিভাইস, ই-কমার্স কেনাকাটাসহ সব মিলিয়ে এক হাজার কোটি টাকার লেনদেন হয়, যা দেশের অর্থনীতিতে ইতিবাচক অবদান রাখছে। 

বাংলাদেশে ১৯৮০র দশক থেকে এ দিনটি জনপ্রিয় হয়ে উঠতে থাকে। ভালোবাসা দিবসকে কেন্দ্র করে নানা রকম শুভেচ্ছাসূচক কার্ড, ফুল, চকোলেট ও উপহারসামগ্রী বিনিময় করেন তরুণ-তরুণীরা। কিন্তু অর্থনীতিতে ভালোবাসা দিবসের অবদান নিয়ে কোনো গবেষণা না হওয়াতে এ বিষয়ে তথ্য পাওয়া কঠিন বলে জানালেন সিডিইআরের (সেন্টার ফর ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড এমপ্লয়মেন্ট রিসার্চ) এক্সিকিউটিভ চেয়ারপারসন রুশিদান ইসলাম রহমান।

তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘যেহেতু এখানে ভালোবাসা দিবসের সঙ্গে এখন বাণিজ্যের প্রসার ঘটছে তাই এর বহুলপ্রচার হয়। বাংলাদেশে বসন্ত উৎসব পালনের পরিসর বেড়েছে। ফুল, গিফট আইটেম, গ্রিটিংস কার্ড, স্মার্ট ডিভাইস, অলংকার, পোশাক, কেক, রেস্টুরেন্টে বিক্রি বেড়ে যায়। তবে দিবসটি উপলক্ষে কেনাবেচা বেড়ে যাওয়ায় আমাদের জিডিপিতে ইতিবাচক অবদান রাখছে। এটা দেশে ফুল চাষসহ বিভিন্ন উৎপাদন খাতে উৎসাহ জোগাচ্ছে।’

বৈশ্বিক পরামর্শক সংস্থা প্রাইসওয়াটারহাউসকুপারস (পিডাব্লিউসি) বাংলাদেশের ম্যানেজিং পার্টনার ও অর্থনীতি বিশ্লেষক মামুন রশীদ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে এবার কেনাকেটা জমজমাট। ডিজিটাল পেমেন্ট (ক্রেডিট কার্ড, মোবাইল ব্যাংকিং), বিভিন্ন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান, তারকা হোটেল ভ্যালেনটাইনস ডে উপলক্ষে নানা অফার দিয়েছে। শুধু ফুল বিক্রি হবে প্রায় ২০০ কোটি টাকার। আমার মনে হচ্ছে, এই অর্থনীতির আকার এক হাজার কোটি টাকা হবে।’

মাস্টারকার্ড বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার সৈয়দ মোহাম্মদ কামাল কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘ভালোবাসা দিবসে ডিজিটাল পেমেন্ট বাড়ে। অনেকে নানা ধরনের ক্যাম্পেইন দিচ্ছে যাতে লেনদেন কিছুটা বেড়েছে। ভালোবাসা দিবসে রেস্টুরেন্টে চাপ থাকবে। তবে শপিংয়ের ক্ষেত্রে খুব বেশি চাপ নেই।’   

ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে অনলাইন কেনাকাটা বেড়েছে বলে জানালেন ই-কমার্স ব্যবসায় পণ্য বিলিকরণ প্রতিষ্ঠান পেপারফ্লাইয়ের পরিচালক ও প্রধান বিপণন কর্মকর্তা এ কে রাহাত আহমেদ। তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বছর শুরু হওয়ার পর জানুয়ারিতে কেনাকাট কিছুটা কমে যায়, যা ভ্যালেনটাইনস ডে উপলক্ষে আবার গতি পায়। আমরা ১০ থেকে ১৫ শতাংশ বেশি ই-কমার্স পণ্য ডেলিভারির অর্ডার পাচ্ছি। ভালোবাসা দিবস দেশের শহুরে অর্থনীতিতে সুবাতাস দিচ্ছে। তবে এ বছর ঢাকার বাইরেও কিছু অর্ডার এসেছে। ভ্যালেনটাইনস ডে উপলক্ষে আমরা শুক্রবারও পণ্য ডেলিভারি অব্যাহত রাখব।’  

ভালোবাসা দিবসে সবচেয়ে চাহিদা বাড়ে ফুলের। ফুল ব্যবসায়ীদের সংগঠন বাংলাদেশ ফ্লাওয়ার্স সোসাইটির (বিএফএস) সভাপতি আবদুর রহিম বলেন, এ বছর ভালোবাসা দিবসে গোলাপের চাহিদা অন্তত ৫০ লাখ। গত বছর ভালোবাসা দিবস ও পহেলা ফাল্গুনে ২০০ কোটি টাকার ফুল বিক্রি হয়েছিল। এবার ১৮০ থেকে ১৯০ কোটি টাকার ব্যবসা হবে। বৈরী আবহাওয়ার কারণে এবার কম ব্যবসা হবে বলে জানান তিনি। প্লাস্টিকের কৃত্রিম ফুলের অবাধ আগমনে ফুল ব্যবসায়ীরা উৎসাহ হারাচ্ছেন বলে জানান তিনি।

ঝিকরগাছা (যশোর) প্রতিনিধি এম আর মাসুদ জানান, ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে শুধু গদখালী এলাকায় প্রায় ২০ কোটি টাকার ফুল বিক্রি হয়েছে। ঋতুরাজ বসন্তকে বরণ করতে ও প্রিয়জনকে ভালোবাসা জানাতে বেড়েছে ফুলের কদর। গদখালী ফুলবাজারে বসন্তবরণ ও বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে গত তিন দিনে গোলাপ বিক্রি হয়েছে সাত কোটি টাকার, গ্লাডিওলাস বিক্রি হয়েছে পাঁচ কোটি, চার কোটি টাকার রজনীগন্ধা ও গাঁদাসহ অন্যান্য ফুল বিক্রি হয়েছে প্রায় দুই কোটি টাকা। তবে তুলনামূলকভাবে দাম কম পাওয়া সত্ত্বেও জারবেরা বিক্রি হয়েছে দেড় কোটি টাকার। ভ্যালেনটাইনস ডে তেও যাঁরা সিঙ্গেল আছেন, তাঁরা বন্ধু খুঁজে নিতে পারেন বাংলাদেশি এ্যাপ কফি আড্ডা থেকে। গুগল প্লেস্টোরে গিয়ে ঈড়ভভবব অফফধ লিখে সার্চ করলেই মিলে যাবে কফি আড্ডা অ্যাপ। এর ডানদিকে সোয়াইপ করলেই অপর মানুষের কাছে চলে যাবে বন্ধুত্বের আহ্বান। কফি আড্ডাতে বন্ধু খুঁজতে খুঁজতে মিলবে নানা গিফট। ঢাকার কোনো প্রিমিয়াম কফি শপে ফ্রি কফির সঙ্গে আড্ডা। অ্যাপ ডাউনলোড লিংক : https://play.google.com/store/apps/details?id=com.mcc.coffee

ভ্যালেনটাইনস ডে উপলক্ষে তারকা হোটেলগুলো দিচ্ছে নানা অফার। র‌্যাডিসন ব্লু ঢাকা নিয়ে আসছে পছন্দের মানুষের জন্য ভ্যালেনটাইনস লাভ বাইটস ও হার্ট ক্রাসার পার্টি।

দি ওয়েস্টিন ঢাকার সহকারী পরিচালক (মার্কেটিং অ্যান্ড কমিউনিকেশন) সাদমান সালাহউদ্দীন বলেন, ‘ভ্যালেনটাইনস ডে উপলক্ষে আমাদের খাবারের অনেক আয়োজন আছে। আমাদের পাঁচটি রেস্টুরেন্টের মধ্যে তিনটিতেই আমরা ভ্যালেনটাইনস ডের আয়োজন করেছি।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা