kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৪ রবিউস সানি     

ফেসবুকে এক লাখ সদস্যের পরিবার এখন ইভ্যালি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ নভেম্বর, ২০১৯ ১৬:৪৫ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ফেসবুকে এক লাখ সদস্যের পরিবার এখন ইভ্যালি

দেশিয় উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত ই-কমার্স ভিত্তিক মার্কেটপ্লেস ইভ্যালি’র ফেসবুক গ্রুপে এখন সদস্য সংখ্যা এক লাখের অধিক। যাত্রা শুরুর মাত্র ১১ মাস সময়ের মধ্যে বিপুল সংখ্যক সদস্য নিয়ে ই-কমার্স উদ্যোগগুলোর মাঝে ‘ইভ্যালি অফার হেল্প অ্যান্ড রিভিউ’ গ্রুপই এখন দেশের সবথেকে বৃহৎ ফেসবুক কমিউনিটি গ্রুপ। 

শনিবার ফেসবুকে ইভ্যালির গ্রুপটিতে গিয়ে দেখা যায় এটির সদস্য সংখ্যা এক লাখ তিন হাজারের বেশি। এছাড়াও প্রতিষ্ঠানটির ফেসবুক পেইজ ইভ্যালি ডট কম ডট বিডি’তে লাইক ও ফলোয়ারের সংখ্যা প্রায় পৌনে আট লাখ। বাংলাদেশে কার্যক্রম পরিচালিত হয় এমন ই-কমার্সগুলোর মাঝে ইভ্যালির গ্রুপটিতেই সদস্য সংখ্যা এখন সবথেকে বেশি। 

গ্রুপটি নিয়ে ইভ্যালির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাসেল বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বিপ্লবের এই যুগে গ্রাহকদের সাথে আমাদের সম্পর্ক ও যোগাযোগের মাধ্যম আরও দৃঢ় করে ফেসবুক এর কমিউনিটি গ্রুপগুলো। সেখানে দেশের ই-কমার্সগুলোর মাঝে সবথেকে বেশি গ্রুপ সদস্য নিয়ে আমরাই এখন সর্ববৃহত। আমাদের কার্যক্রম শুরুর এক বছরও হয়নি। এরই মাঝে এমন সফলতা আমাদের গ্রাহক, ব্যবসায়ী এবং গণমাধ্যম ও গণমাধ্যমকর্মীদের নিরন্তর সহযোগিতার জন্যই অর্জন করা সম্ভব হয়েছে। প্রতিদিন সহস্রাধিক গ্রাহক বিভিন্ন ধরনের গ্রাহক সেবা ও তথ্য পাচ্ছেন এই গ্রুপটি থেকে। তাদের সমস্যা, পরামর্শ এবং আনন্দঘন মুহুর্তের কথা আমাদের পাশাপাশি অন্যান্য গ্রুপ সদস্যদের সাথে শেয়ার করছেন। এতে করে সবার সাথে সবার সরাসরি যোগাযোগের দ্রুত একটি মাধ্যম নিশ্চিত হয়েছে। 

মোহাম্মদ রাসেল আরও বলেন, ফেসবুক পেইজ, গ্রুপ এবং ওয়েব সাইট র‍্যাংকিং নিয়ে কাজ করে এমন কিছু স্বনামধন্য গ্লোবাল প্ল্যাটফর্মের সাম্প্রতিক কিছু প্রতিবেদনেও বেশ ইতিবাচক সাড়া পাচ্ছি আমরা। তারা বলছে বাংলাদেশ থেকে পরিচালিত দ্রুত বর্ধিত হওয়া ফেসবুক পেইজ ও গ্রুপের মধ্যে ইভ্যালির পেইজ ও গ্রুপ অন্যতম শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে। আমরা প্রতিনিয়ত আমাদের গ্রাহক সেবা আরও উন্নতিকরণে কাজ করছি। আমাদের কাছে আমাদের প্রতিটি গ্রাহক এতটাই গুরুত্বপূর্ণ ঠিক যতটাই এক লক্ষ সংখ্যায় ১ অংকটা গুরুত্বপূর্ণ। এধরনের অর্জন সেখানে অবদান রাখবে এবং দেশিয় ই-কমার্স গ্রাহকেরা এর সুফল পাবে বলে আমাদের বিশ্বাস। 

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের ১৬ ডিসেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে নিজেদের কার্যক্রম শুরু করে ই-ভ্যালি। সম্পূর্ণ দেশিয় উদ্যোগে পরিচালিত এই প্রতিষ্ঠানটি ব্যক্তিক্রমী ব্র্যান্ডিং এবং মার্কেটিং এর কারণে বাজারে ব্যাপক সাড়া ফেলে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা