kalerkantho

'কাঁচা চামড়া রপ্তানির আদেশ প্রত্যাহারের বিষয়টি ভেবে দেখা হবে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ আগস্ট, ২০১৯ ০৭:৩১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'কাঁচা চামড়া রপ্তানির আদেশ প্রত্যাহারের বিষয়টি ভেবে দেখা হবে'

ফাইল ফটো

আগামীকাল শনিবার থেকে ট্যানারিগুলো আড়তদারদের কাছ থেকে কোরবানির পশুর কাঁচা চামড়া কিনতে শুরু করবে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় বলছে, চামড়া বেচা-কেনায় কঠোর নজরদারি করা হবে। ট্যানারির মালিকরা সরকারের বেঁধে দেওয়া দামে চামড়া কিনলে কাঁচা চামড়া রপ্তানির আদেশ প্রত্যাহার করা হতে পারে।

ইতোমধ্যেই দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ‘পানির দামে’ বা নামমাত্র মূল্যে কেনা কোরবানির পশুর চামড়া এরই মধ্যে রাজধানীর আড়তগুলোতে মজুদ হয়েছে।

বাণিজ্যসচিব মো. মোফিজুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে ট্যানারির মালিকদের নিয়ে গত বুধবার জরুরি ভিত্তিতে বৈঠক করেছি। আমরা তাঁদের অতিসত্বর চামড়া কেনার আহ্বান জানিয়েছি। ট্যানারির মালিকরা আমাদের আহ্বানে সাড়া দিয়ে শনিবার থেকে কোরবানির পশুর চামড়া কেনা শুরু করবেন বলে জানিয়েছেন।’

বাণিজ্যসচিব বলেন, ‘শনিবার থেকেই কোরবানির পশুর চামড়া বেচা-কেনা বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কঠোর নজরদারি করবে। বিভিন্ন এলাকায় খোঁজখবর রাখবে। ট্যানারির মালিকরা সরকারের নির্ধারিত দামে কোরবানির পশুর চামড়া কিনলে কাঁচা চামড়া রপ্তানির আদেশ প্রত্যাহার করার বিষয়টি ভেবে দেখা হবে। তবে ট্যানারির মালিকরা কারসাজি করে সরকারের বেঁধে দেওয়া দামের চেয়ে কমে কিনলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে কাঁচা চামড়া রপ্তানির সুযোগ রাখা হবে। প্রথম ধাপে ওয়েট ব্লু রপ্তানিতে উৎসাহিত করা হবে। এরপর অন্যান্য চামড়া রপ্তানির সুযোগ দেওয়া হবে।’ তিনি আরো বলেন, ‘চামড়া তো আর পানির দামে বিক্রি হতে দেওয়া যায় না। চামড়া সংগ্রহকারীদের ন্যায্যামূল্য নিশ্চিত করতে সরকার অঙ্গীকারবদ্ধ।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা