kalerkantho

সোমবার । ২২ জুলাই ২০১৯। ৭ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৮ জিলকদ ১৪৪০

এফবিসিসিআই ভ্যাট আইনে পরিবর্তন চায়, বাস্তবায়নে প্রস্তুতি নিচ্ছে এনবিআর

ফারজানা লাবনী    

২৩ জুন, ২০১৯ ০৮:৪৯ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



এফবিসিসিআই ভ্যাট আইনে পরিবর্তন চায়, বাস্তবায়নে প্রস্তুতি নিচ্ছে এনবিআর

আগামী ১ জুলাই থেকে ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পার করছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। ভ্যাট আইনের কোন কোন ধারায় আপত্তি রয়েছে সেটা ৪৮২টি ব্যবসায়ী সংগঠনের কাছ থেকে জানার পর খতিয়ে দেখে এবং প্রস্তাবিত বাজেটের আরো কিছু বিষয়ে দাবি জানিয়ে একটি চূড়ান্ত প্রস্তাব তৈরি করেছে এফবিসিসিআই। সংগঠনটির প্রতিনিধিরা তাঁদের এ প্রস্তাব নিয়ে আজ রবিবার বা আগামীকাল সোমবার এনবিআর চেয়ারম্যানের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন। অন্যদিকে এনবিআর চেয়ারম্যান গতকাল শনিবার টানা সাড়ে পাঁচ ঘণ্টা সারা দেশের ভ্যাট কমিশনারদের নিয়ে জরুরি বৈঠক করেছেন।

জানা গেছে, সকাল ১১টা থেকে বিকেল ৪টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত চলা ওই বৈঠকে প্রস্তাবিত বাজেটে ভ্যাট আইন-২০১২ বাস্তবায়নের নির্দেশ দেওয়ার পর মাঠপর্যায়ের ব্যবসায়ীদের প্রতিক্রিয়া কী, আইনটি বাস্তবায়নে এনবিআরের মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রস্তুতি কতটা তা নিয়ে আলোচনা হয়।

গত ১৩ জুন জাতীয় সংসদে আগামী অর্থবছরের (২০১৯-২০) বাজেট পেশ করা হয়। প্রস্তাবিত এ বাজেটে ভ্যাট আইন অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

এফবিসিসিআই : প্রস্তাবিত বাজেটে কাঁচামাল আমদানিতে ৫ শতাংশ অগ্রিম কর আরোপ করা হয়েছে, জোগানদারের ওপর ভ্যাটের হার ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৭.৫ শতাংশ করা হয়েছে. পুঁজিবাজারে বোনাস ডিভিডেন্ডের ওপর ১৫ শতাংশ নতুন কর আরোপ হয়েছে, ঠিকাদারের লইসেন্স দ্বিতীয়বার নবায়নের ফি ৫০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে তিন হাজার টাকা ধার্য করা হয়েছে। এসব বাতিল করার প্রস্তাব দিয়েছে দেশের বিভিন্ন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি ও ব্যবসায়ীদের সংগঠন, যা এফবিসিসিআই থেকে চূড়ান্ত দাবি হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে। একই সঙ্গে ভ্যাট আদায়ে কঠোরতা থেকে সরে আসা, রাজস্ব মামলার ফি কমানো, ভিন্ন ভিন্ন স্থানে পরিচালিত ব্যবসার জন্য পৃথক নিবন্ধন নম্বর গ্রহণে আপত্তি, রেয়াত নেওয়ার পদ্ধতি সহজ করা, অ্যালুমিনিয়াম ও অ্যালুমিনিয়ামের তৈরি রান্নায় ব্যবহৃত তৈজস বা গৃহস্থালির অন্যান্য তৈজসপত্র, স্যানিটারি ওয়্যার ও যন্ত্রাংশের স্থানীয় সরবরাহ পর্যায়ে আরোপিত ৫ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহার, সব খাতে করপোরেট কর হার ২.৫ শতাংশ কমানো এবং করমুক্ত আয়সীমা বাড়ানোর দাবি জানিয়ে প্রস্তাব তৈরি করেছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই।

এফবিসিসিআইয়ের ঊর্ধ্বতন সহসভাপতি মুনতাকিম আশরাফ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘এফবিসিসিআই থেকে বিভিন্ন অ্যাসোসিয়েশন এবং চেম্বারের কাছ থেকে প্রস্তাবিত বাজেটে অন্তর্ভুক্ত ভ্যাট আইনসহ বিভিন্ন বিষয়ে মতামত নিয়ে একটি চূড়ান্ত প্রস্তাব তৈরি করা হয়েছে। এসব প্রস্তাব চূড়ান্ত বাজেটে অন্তর্ভুক্তির দাবি জানানো হবে। এফবিসিসিআই সভাপতি বিদেশ থেকে ফিরে এলে এনবিআরের চেয়ারম্যানের সঙ্গে আলোচনায় বসতে আগামী রবিবার বা সোমবার এনবিআরে যাব। আশা করি, এনবিআর চেয়ারম্যান আমাদের এ দাবি বিবেচনা করে চূড়ান্ত বাজেটে অন্তর্ভুক্ত করবেন।’

এনবিআর : গতকাল সারা দেশের ভ্যাট কমিশনারদের নিয়ে এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বৈঠকে বসেন। এ সময় কমিশনাররা অনলাইনে ভ্যাট আদায়ে সম্পূর্ণ প্রস্তুত নয় বলে জানান। এর জবাবে এনবিআর চেয়ারম্যান অনলাইনে ভ্যাট আদায় প্রকল্পের সঙ্গে জড়িতদের আগামী ৩০ জুনের মধ্যে প্রস্তুতি শেষ করতে নির্দেশ দেন। অগ্রিম করের বিষয়ে ব্যবসায়ীদের আপত্তির বিষয়টি নিয়ে বৈঠকে কথা হয়। আদায়ের কঠোরতার বিষয়ে ব্যবসায়ীদের মধ্যে নেতিবাচক মনোভাব তৈরি হয়েছে বলেও কমিশনাররা জানান।

চেয়ারম্যান কমিশনারদের সতর্ক করে দিয়ে বলেন, ১ জুলাই থেকে ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন করতে গিয়ে যাতে কোনো ধরনের বিতর্ক তৈরি না হয় সে বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠনকে সঙ্গে নিয়েই আইনটি বাস্তবায়নে যেতে চেষ্টা করতে হবে বলেও এনবিআর চেয়ারম্যান বৈঠকে জানান।

খবরটি ইউনিকোড থেকে বিজয়ে নিতে ব্যবহার করুন কালের কণ্ঠের বাংলা কনভার্টার-

https://www.kalerkantho.com/home/converter

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা