kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

ভুট্টা চাষ

শেরপুর প্রতিনিধি   

২৪ মে, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শেরপুরের নকলা উপজেলার পাইশকা গ্রামের কৃষক আবু বকর ছিদ্দিক ৪ শতাংশ জমিতে হাইব্রিড লং-১১১ জাতের ভুট্টা চাষ করে চার মণ ফলন পেয়েছেন। এতে তাঁর খরচ হয়েছে ৭৮০ টাকা। তিনি উৎপাদিত ভুট্টা বিক্রি করে পেয়েছেন দুই হাজার ৪০০ টাকা। বোরো মৌসুমে ধান আবাদে খরচ এবং ঝুঁকি বেশি থাকায় এবার তিনি ভুট্টা চাষ করে লাভবান হয়েছেন বলে তিনি বেশ খুশি। তাঁর দেখাদেখি অনেকেই ওই এলাকায় ভুট্টা চাষ করেছেন। ভুট্টা চাষে খরচ কম, পরিচর্যাও তেমন লাগে না, কিন্তু লাভ প্রায় তিন গুণ। এ জন্য ভুট্টা চাষে কৃষকদের উৎসাহিত করছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর। এতে ওই এলাকার পাঁচজন কৃষকের একত্রে একটি প্লটে আড়াই একর জমিতে ভুট্টার বেশ ভালো ফলন দেখা যায়। ভুট্টা চাষি মহিউদ্দিন জুয়েল, আজিজুল হক ও আংগুর মিয়া জানান, কৃষি বিভাগ থেকে তাঁদের বীজ-সার সহায়তা দেওয়া হয়েছে। তাঁদের আড়াই একর জমিতে ভুট্টা আবাদে খরচ হয়েছে প্রায় ৩০ হাজার টাকা। কিন্তু যে ফলন হয়েছে, তাতে ৬০০ টাকা মণ দরে ভুট্টা বিক্রি করলে প্রায় এক লাখ টাকা বিক্রি করা যাবে। পাইশকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত মাঠ দিবসে স্থানীয় লিয়াকত আলী খান দুলালের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. আশরাফ উদ্দিন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা