kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ১৭ অক্টোবর ২০১৯। ১ কাতির্ক ১৪২৬। ১৭ সফর ১৪৪১       

মেলায় ১১ বছরের আদিনার বই

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১০:৫১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মেলায় ১১ বছরের আদিনার বই

'Trampled Flower Buds'। অর্থাৎ পিষে ফেলা ফুলের কলি। মুক্তিযুদ্ধের পটভূমিকায় ইংরেজি ভাষায় রচিত একটি কিশোর গল্পগ্রন্থ। যার রচয়িতা একজন কিশোরী। নাম আদিনা হাসান। মাত্র ১১ বছর বয়সে আদিনা গ্রন্থটি লিখতে শুরু করে। পুরো গ্রন্থটি শেষ করতে ছয় মাস সময় লেগেছে। বই পোকা এই মেয়েটি সময় পেলেই নানান ধরনের বই পড়ে। 

প্রথম বিশ্বযুদ্ধ, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ, আনাফ্রাঙ্কের ডায়েরি ছাড়াও সায়েন্স ফিকশন ওর ভীষণ প্রিয়। মাওসেতুং, হিটলার-এর গল্প পড়তে পড়তে ওর বেড়ে ওঠা। পৃথিবীর তাবৎ বিখ্যাত মনীষীদের জীবনী যেন ওর মগজে গিজগিজ করছে। মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর ও শাহবাগ জাদুঘরে মুক্তিযুদ্ধের ওপর আঁকা ছবিগুলো দেখতে দেখতে মনে মনে সিদ্ধান্ত নিল সে ও ১৯৭১ সালে ঘটে যাওয়া রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধে আমাদের অর্জনের কথা পৃথিবীর সকল শিশুর জন্য লিখে ফেলবে। যাতে ওরাও আমাদের এই কষ্টের ও ত্যাগের ইতিহাস পড়ে জাতি হিসেবে বাঙালিদের সম্মান করতে শেখে। লেখিকা গ্রন্থটিতে একটি ছোট্ট বালিকার চোখ দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের কথাগুলো ফুটিয়ে তুলেছে। ছবি আঁকায় চমৎকার দক্ষতার কারণে গ্রন্থটির প্রচ্ছদ ও নিজেই করেছে। এ বছর একুশে বইমেলার শুরু থেকেই আদিনার রচিত গ্রন্থটি আত্মপ্রকাশ করে ‘সপ্তডিঙ্গা’ প্রকাশনী। তাছাড়া ‘বর্ণ বই’ প্রকাশনীর আরো ৮টি ছোটদের গল্পের বইয়ের প্রচ্ছদও করেছে। আদিনা এ পর্যন্ত ছবি আঁকায় সরকারি-বেসরকারি, জাতীয়-আন্তর্জাতিক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে পেয়েছে ৫০০টির বেশি সার্টিফিকেট ও পুরস্কার। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য পুরস্কারগুলো হচ্ছে- জাপান, থাইল্যান্ড, ভারত, চায়না অ্যাম্বাসি, মিতসুবিশি, ব্রিটিশ কাউন্সিল ইত্যাদি। তার এই পথচলায় মা ও রংধনু আর্ট একাডেমীর প্রতিষ্ঠাতা ও শিক্ষক রুমা মিসকে কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করতে চায়; যাদের সহযোগিতায় তার এই অর্জন। বড় হয়ে পেশা হিসেবে আরকেওলজিস্ট এবং শখ হিসেবে চিত্রশিল্পী ও লেখিকা হতে চায় আদিনা।

উল্লেখ্য, একুশে বইমেলায় আমেরিকান রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার, কথাসাহিত্যিক আনিসুল হক ও শিশুসাহিত্যিক আলী ইমাম আদিনার রচিত গ্রন্থের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা