kalerkantho

সোমবার। ২৭ মে ২০১৯। ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ২১ রমজান ১৪৪০

তারকার বৈশাখ

পরিবারের সঙ্গে বৈশাখ

২০১৮ সালের লাক্স সুপারস্টার মিম মানতাশা। কিভাবে উদ্যাপন করবেন এবারের পহেলা বৈশাখ জানিয়েছেন মীর রাকিব হাসানকে

১৪ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পরিবারের সঙ্গে বৈশাখ

‘পহেলা বৈশাখে বাঙালিরা ধর্ম-বর্ণ-নির্বিশেষে একসঙ্গে আনন্দ উদ্যাপন করে। এ বিষয়টি সবচেয়ে বেশি ভালো লাগে। তাই ঈদের চেয়েও পহেলা বৈশাখ প্রিয়। অনেক আনন্দ করি সেদিন’—বললেন মিম মানতাশা।

পুরোটা দিন বাসায়ই উদ্যাপন করবেন পহেলা বৈশাখ। আর সন্ধ্যায় ঘুরতে বের হবেন। ‘বাসায় অনেক অতিথি আসেন। ফলে সেদিন আর চারুকলার দিকে যাওয়া হয় না। আম্মু অনেক রান্নাবান্না করেন। পান্তা-ইলিশ থাকবে এ বছরও। আম্মু ইলিশ মাছ একটু ভিন্নভাবে রান্না করেন। এ ছাড়া অন্যান্য খাবার তো থাকবেই। পহেলা বৈশাখে খাবারে ভিন্নতা আনতে বিভিন্ন রকমের ভর্তার মেন্যু করা হয়। আমাদের সব আত্মীয়-স্বজনও প্রায় ঢাকায়ই থাকেন। সবাই পহেলা বৈশাখে আমাদের বাসায় চলে আসেন। একটা বড়সড় গেটটুগেদার হয়ে যায়। এ লোভেই আর বাইরে বের হওয়া হয় না’—বললেন তিনি।

নিজে রান্না না করলেও রান্নাবান্নায় মায়ের একান্ত সহকারী হিসেবে থাকবেন বলে জানালেন, ‘সব রান্না আম্মাই করেন। আমি শুধু এটাওটা এগিয়ে দিয়ে তাঁকে সাহায্য করি। যেহেতু অনেক গরম থাকার সম্ভাবনা, সে জন্য রেসিপিতে হরেক রকম জুস রাখার পরিকল্পনা আছে। চেষ্টা করব জুসটা আমি নিজেই তৈরি করতে।’

এ দিন বর্ণিল সাজে সাজবেন মানতাশা। নিজেকে রাঙাতে পোশাক থেকে শুরু করে কিছুটা হালকা রং বেছে নেবেন। বৈশাখের দিন পরার জন্য শাড়ি কিনেছেন। চোখে গাঢ় করে কাজল দেবেন। দুই হাত ভরে পরবেন কাচের চুড়ি। আর চুল সাজাবেন বেলি ফুল দিয়ে।

বৈশাখের আগের দিন ভাার্সিটি যান। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার শিক্ষার্থী তিনি। চারুকলার শিক্ষার্থীরা পুরো বিশ্ববিদ্যালয় সাজান। অনেক রঙের কাজ হয়। তাতে অংশ নেন তিনি। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পর থেকেই কাজটি করে আসছেন। এখন অনার্স শেষ হয়ে যাওয়ার পরও নেশায় পড়ে গেছেন। এখন প্রতিবছর পহেলা বৈশাখের অপেক্ষায় থাকেন এই তারকা।

তবে এখনকার চেয়ে শৈশবের বৈশাখেই বেশি আনন্দ খুঁজে পেতেন, ‘শৈশবে অনেক ঘুরে বেড়াতাম। ঢাকায় কোথাও মেলা হলে চলে যেতাম। গ্রামে আমাদের কোনো আত্মীয় নেই বললেই চলে। অনেক ইচ্ছা হয় গ্রামে গিয়ে কোনো পহেলা বৈশাখ পালন করতে! শহুরে পহেলা বৈশাখ তো অনেক দেখলাম। এক বৈশাখে একেবারে মাটির গন্ধের পহেলা বৈশাখ কেমন হয় দেখতে গ্রামে চলে যাব।’

 

মন্তব্য