kalerkantho

সোমবার। ২৭ মে ২০১৯। ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ২১ রমজান ১৪৪০

কাজের মানুষ

এসেছে নতুন সহকর্মী

সৈয়দ আখতারুজ্জামান, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, বিয়ন্ড ইনস্টিটিউট অব ট্রেনিং অ্যান্ড কনসালট্যান্সি ব্যবস্থাপনাবিষয়ক লেখক ও প্রশিক্ষক

৮ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



এসেছে নতুন সহকর্মী

প্রতিনিয়ত অফিসের কাজে যোগ দেন নতুন সহকর্মী। আবার বিদায়ও নিচ্ছেন দীর্ঘদিনের পুরনো সহকর্মীরা। বিদায় যেমন কখনো বেদনার আবার কখনো স্বস্তির। তেমনি নতুন যিনি যোগ দিচ্ছেন তিনি হতে পারেন আপনার সহযোদ্ধা বা প্রতিযোগী। বিষয়টা বলা জটিল। তাই অজানা এই নতুন মানুষটির সঙ্গে আপনার সম্পর্ক যাতে ইতিবাচক হয়, তাই আপনার জন্য রইল দশ পরামর্শ।

 

এক.

প্রথম দিনেই তাঁকে স্বাগত জানান। হাসিমুখে সহজভাবে গ্রহণ করুন। নিজেকে গুটিয়ে রাখবেন না। শুভেচ্ছা বিনিময় করুন। তাঁকে বুঝতে দিন, আপনি তাঁর শুভাকাঙ্ক্ষী।

 

দুই.

তাঁর মানসিক অবস্থা বোঝার চেষ্টা করুন। খুব সহজেই বুঝতে পারবেন, যদি আপনার যোগদানের প্রথম দিনটির কথা স্মরণ করতে পারেন। একটা অজানা আতঙ্কে অফিসের প্রথম দিনগুলো কাটে। তাঁরও বলতে গেলে একই অনুভূতি। এসব সময়ে যে সবার আগে সহানুভূতির হাত বাড়ায় সেই দীর্ঘদিনের সহযোদ্ধা হয়ে ওঠে।

 

তিন.

নতুন সহকর্মীকে তাঁর দায়িত্ব-কর্তব্য বুঝে উঠতে সাহায্য করুন। কোনটি বেশি গুরুত্বপূর্ণ আর কোনটি নয়—এ ব্যাপারগুলো তাঁকে ধীরে ধীরে বুঝিয়ে দিন।

 

চার.

তাঁর মানসিক অবস্থা বুঝে সাহায্যের হাত বাড়াতে হবে। তিনি আসলেই সাহায্য চাইছেন কি না সেটাও ভাবার বিষয়। তিনি আপনার সমপদে, ঊর্ধ্বতন বা অধস্তন কোন পদে যোগ দিলেন তার ওপর আপনার প্রতিক্রিয়া নির্ভর করবে। এই তিন পদের জন্য সংক্ষেপে তিনটি মূলমন্ত্র আছে—

ক. সহকর্মী আপনার বিভাগের ঊর্ধ্বতন হলে তাঁকে বুঝিয়ে দিন আপনি তাঁর দলের একজন আদর্শ অনুসারী।

খ. সমপদের হলে তাঁকে বুঝিয়ে দিন আপনি তাঁর প্রতিযোগী নন; বরং সহযোগী, যেকোনো প্রয়োজনে তিনি বিনা সংকোচে আপনার সাহায্য চাইতে পারেন।

গ. আর অধস্তন হলে তাঁকে বুঝিয়ে দিন আপনি একজন দক্ষ দলনেতা। একজন আদর্শ অনুসারীকে দক্ষ নির্বাহীতে পরিণত করতে আপনি সব সময় যত্নশীল।

 

পাঁচ.

পরিস্থিতি, সহকর্মীর ব্যক্তিত্ব আর আপনার অবস্থান বুঝে তাঁকে অফিসের সংস্কৃতি সম্পর্কে অনানুষ্ঠানিকভাবে অবগত করুন। প্রতিটি অফিসের ভিন্ন ভিন্ন সংস্কৃতি আছে। একজন নতুন যোগ দেওয়া কর্মকর্তাকে ধাক্কা খাওয়ার আগে দ্রুত এই সংস্কৃতি বুঝে উঠতে হয়। আপনি একজন পুরনো কর্মকর্তা হিসেবে তাঁকে ভীষণভাবে সহযোগিতা করতে পারেন।

 

ছয়.

কখনো এই ভেবে নিজেকে গুটিয়ে রাখবেন না যে আপনি অফিসে বহু ধাক্কা খেয়ে কাজ শিখেছেন। তাই নতুন যিনি এসেছেন তাঁকেও ধাক্কা খেয়ে শিখতে হবে। আগ বাড়িয়ে আপনি বলতে যাবেন কেন? এটা একজন ভালো সহকর্মীর বৈশিষ্ট্য হতে পারে না।

সাত.

চাকরিতে যিনি নতুন যোগ দিলেন, তিনি যদিও বা অফিসের সবার সহকর্মী কিন্তু কার্যত তাঁকে হয় গুটি কয়েকজনের সঙ্গে প্রতিনিয়ত কাজ করতে হয়। আপনি এই গুটিকয় কর্মকর্তার কাজের ধরন পছন্দ-অপছন্দ সম্পর্কে তাঁকে আগে থেকেই অবগত করতে পারেন। তবে অবশ্যই বলে রাখবেন, এটা একান্তই আপনার অভিমত। তিনি যেন তাঁর মতো করে সবাইকে বুঝে নেন। এই বোঝাপড়াটাই একটা অফিসের চমৎকার কাজের পরিবেশ তৈরি করে।

 

আট.

আপনি যদি আসলেই তাঁর ভালো চান, তাহলে প্রথম দিন থেকেই তাঁর মারাত্মক ভুলগুলো ধরিয়ে দিন। তাঁকে সতর্ক করুন, তাতে তাঁর ভালো লাগুক আর না লাগুক। সময়ে তিনি অবশ্যই বুঝবেন আপনি তাঁর আসল শুভাকাঙ্ক্ষী ছিলেন।

 

নয়.

নতুন সহকর্মীকে যা পরামর্শ দেওয়ার তা ধাপে ধাপে দিন। এক দিনে সব নয়। নিজেকে সম্পূর্ণভাবে অবারিত করবেন না। পরিস্থিতি, তার ব্যক্তিত্ব আর আপনার অবস্থান বুঝে এগোতে হবে।

 

দশ.

যদি পারেন তাকে একটা শুভেচ্ছা উপহার দিন। একজন নতুন সহকর্মী নতুন অফিসে একজন আসলেন শুভাকাঙ্ক্ষীর জন্য মরিয়া হয়ে থাকেন। তাঁর আত্মবিশ্বাস এই ছোট্ট জিনিসটুকুর ওপর অনেক নির্ভরশীল।

 

 

মন্তব্য