kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ মে ২০১৯। ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৮ রমজান ১৪৪০

ইন্টেরিয়র

ঘরের গাছের মশা তাড়াতে

৮ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ঘরের গাছের মশা তাড়াতে

গাছপ্রেমীরা ছাদ ও বারান্দার পাশাপাশি ঘর সাজাতেও নানাভাবে গাছ ব্যবহার করেন। তবে এই গাছ যেন মশার আশ্রয়স্থল না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। মশা তাড়ানোর পরামর্শ জানাচ্ছেন নাঈম সিনহা

 

বছর ঁ জুড়েই মাশার উপদ্রব থাকে। বৃষ্টির মৌসুমে উৎপাত বৃদ্ধি পায়। এ সময় মশার বংশবিস্তারের জন্য সহায়ক। ঘরের অন্ধকার আনাচে-কানাচে ও গাছের ভেতর মশা লুকিয়ে থাকে। তাই বলে তো ঘরের গাছ বাদ দেওয়া যাবে না; বরং গাছে যেন মশা বাসা বাঁধতে না পারে সে ব্যবস্থা নিতে হবে। নিয়মিত গাছের পরিচর্যার পাশাপাশি প্রয়োজন আরো কিছু বাড়তি সতর্কতা।

 

টব পরিষ্কার

নিয়মিত টব পরিষ্কার ছাড়া ঘরের গাছের মশা নিধনের কোনো বিকল্প নেই। প্রথমে খেয়াল রাখুন টবের নিচে ছিদ্র আছে কি না। না থাকলে গাছের গোড়ায় পানি জমবে। জমে থাকা পানি মশার ডিম পাড়ার উপযুক্ত স্থান। আবার টবে ছিদ্র থাকলেও টবের নিচের প্লেটেও পানি জমতে পারে। এ জন্য টবের নিচে বা প্লেটে স্পঞ্জের টুকরা রেখে দিন। স্পঞ্জ বাড়তি পানি শুষে নেবে। ভেজা স্পঞ্জ তিন দিন পরপর পরিষ্কার করতে হবে। তা না হলে সেখানে মশা না হলেও অন্য রোগ জীবাণু বাসা বাঁধবে।

 

গাছের যত্ন

ঘরে গাছ রাখতে চাইলে এমন জায়গা নির্বাচন করুন, যেখানে পর্যাপ্ত আলো-বাতাস প্রবেশ করে। গাছের মরা পাতা সব সময় ছেঁটে রাখুন। সপ্তাহে দুই থেকে তিন দিন ঘরের গাছ বাইরে নিয়ে রোদে দিন। এ ছাড়া প্রতিদিন ঘর পরিষ্কারের সময় গাছের পাতাগুলো হালকাভাবে নেড়ে দিন। মশা লুকিয়ে থাকলে বের হয়ে যাবে। বৃষ্টির মৌসুমে মাসে এক দিন পরিমিত মাত্রায় গাছে মশার ওষুধ স্প্রে করতে পারেন।

 

পানির গাছ

কিছু কিছু ইনডোর প্লান্ট শুধু পানিতেই বেঁচে থাকতে পারে। যেমন পাতাবাহার, মানিপ্লান্ট, ডাইফেনবেকিয়া, কয়েন লিলি ইত্যাদি। এসব গাছের পানি প্রতি সপ্তাহে বদলে দিতে হবে। কাচের বোতলে পানি দিয়ে গাছ রাখলে বোতলের মুখে তুলা গুঁজে দিতে পারেন। এতে মশা ভেতরে প্রবেশ করতে পারবে না। আর অন্যান্য পাত্রের ক্ষেত্রে ওপরের অংশ পতলা নেট দিয়ে ঢেকে রাখতে পারেন।

 

মশা তাড়ানো গাছ

মশার উপদ্রব থেকে বাঁচতে লাগাতে পারেন মশা অপছন্দ করে—এমন গাছ। বেশ কিছু গাছের গন্ধ মশা পছন্দ করে না। যেমন তুলসী, লেমন গ্রাস, পুদিনা, গাঁদাফুল গাছ। ঘরের কোণে এসব গাছ থাকলে মশা সেখান থেকে পালাবে।

 

 

মন্তব্য