kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

গাজীপুর ৫

ভোটযুদ্ধে মুখোমুখি দুই নারী

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভোটযুদ্ধে মুখোমুখি দুই নারী

গাজীপুর-৫ আসনে প্রথমবারের মতো ভোটযুদ্ধে মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন দুই নারী পদপ্রার্থী। তাঁদের একজন বর্তমান সংসদ সদস্য (এমপি) এবং মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি। অন্যজন উপজেলা জাতীয় পার্টির (জাপা) সভাপতি রাহেলা পারভীন শিশির। মহাজোটের শরিক দুই দলের দুই নারী একই আসন থেকে প্রার্থী হওয়ায় নির্বাচনী এলাকাজুড়ে ভোটার ও সাধারণ মানুষের মধ্যে কৌতূহলের শেষ নেই।

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলা, সদর উপজেলার বারিয়া ইউনিয়ন ও গাজীপুর মহানগরীর পুবাইল এলাকার চারটি ওয়ার্ড নিয়ে গাজীপুর-৫ আসন। তিন লাখ দুই হাজার ২৪৫ ভোটারের এ আসনে পুরুষ ভোটারের সংখ্যা এক লাখ ৫২ হাজার ৯৯৮ জন। বাকি এক লাখ ৪৯ হাজার ২৪৭ জন নারী ভোটার। দুই নারী প্রার্থীসহ গাজীপুর-৫ আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন সাতজন। চুমকি ও শিশির ছাড়া অন্যরা হলেন বিএনপির এ কে এম ফজলুল হক মিলন, ইসলামী আন্দোলনের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, জাকের পার্টির আমিনুল ইসলাম মাহমুদ, ইসলামিক ফ্রন্টের মো. আল আমিন দেওয়ান ও মো. আবু আশরাফ ভূঁইয়া (স্বতন্ত্র)।

জানা যায়, ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে চুমকি সংরক্ষিত আসনের এমপি নির্বাচিত হন। ২০০৮ সালে দলীয় মনোনয়ন পেয়ে এমপি নির্বাচিত এবং পরে মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী হন তিনি। ২০১৪ সালের নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপি হয়ে তিনি আবারও মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান। এমপি ও প্রতিমন্ত্রীর থাকার সুবাদে তিনি এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করছেন। আসন্ন একাদশ জাতীয় নির্বাচনেও দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন চুমকি।

অন্যদিকে জাপা থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন শিশির। তিনি কালীগঞ্জ উপজেলা জাপার সভাপতি এবং বাংলাদেশ জাতীয় ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প অ্যাসোসিয়েশনের সহসভাপতি। মহাজোটের শরিক দল জাপা ২০০৮ এবং ২০১৪ সালে দলের সিদ্ধান্তে নির্বাচনে অংশ না নিয়ে আওয়ামী লীগের পদপ্রার্থীকে সমর্থন দেন। এবার আওয়ামী লীগের কাছে এ আসন দাবি করেছিল জাপা। আসন নিয়ে সমঝোতা না হওয়ায় শিশিরকে মনোনয়ন দেয় জাপা। তিনিও মনোনয়নপত্র জমা দিয়ে মাঠে নেমে পড়েছেন।

আসন নিয়ে আওয়ামী লীগ-জাপার সমঝোতা না হলে গাজীপুর-৫ আসনে দুই নারী পদপ্রার্থী ভোটের মাঠে মুখোমুখি হচ্ছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা