kalerkantho

সোমবার । ২৪ জুন ২০১৯। ১০ আষাঢ় ১৪২৬। ২০ শাওয়াল ১৪৪০

ভোটকেন্দ্রে না যেতে মাইকিং নেতাকে পিটুনি

বাঘারপাড়া (যশোর) প্রতিনিধি   

৩১ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



যশোরের বাঘারপাড়ায় ভোটারদের মধ্যে ভীতি সঞ্চার করার অভিযোগে গত শুক্রবার রাতে মারধরের শিকার হয়েছেন যুবলীগ নেতা কামরুজ্জামান লিটন ও তাঁর কয়েক সহযোগী। এ ঘটনায় দুই পক্ষ পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করলেও পুলিশ বলছে—মারধরের ঘটনা ঘটেনি। দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিল মাত্র।

কামরুজ্জামান লিটন বলেন, তাঁরা মুক্তিযোদ্ধা হাসান আলীর (নৌকা মার্কা) পক্ষে শান্তিপূর্ণভাবে প্রচার চালাচ্ছিলেন। চাড়াভিটা বাজারে হঠাৎ করে বাসুয়াড়ী ইউপি চেয়ারম্যান আবু সাঈদ সরদার ও স্বতন্ত্র প্রার্থী নাজমুল ইসলাম কাজলের (আনারস মার্কা) ভাই টুটুলের নেতৃত্বে শতাধিক সশস্ত্র ব্যক্তি তাঁদের ঘিরে ধরে মারধর করেন। এতে নৌকার পাঁচ-সাত সমর্থক আহত হয়।

লিটন জানান, এ ঘটনায় গতকাল শনিবার সকাল ১১টার দিকে বাঘারপাড়া থানায় একটি অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। তবে ভোটারদের কেন্দ্রে যেতে নিষেধ কিংবা হুমকির বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন।

বাঘারপাড়া থানার এসআই আজিজুর রহমান জানান, দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধস্তাধস্তি হয়েছে। খবর পেয়ে তিনি সেখানে গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেন। আর ওসি জসীম উদ্দীন বলেন, মারধরের কোনো ঘটনা ঘটেনি। দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।

মন্তব্য