kalerkantho

রবিবার। ১৬ জুন ২০১৯। ২ আষাঢ় ১৪২৬। ১২ শাওয়াল ১৪৪০

মেঘনা ও তিতাস

আওয়ামী লীগের সঙ্গে বিদ্রোহীর লড়াই

দাউদকান্দি (কুমিল্লা) প্রতিনিধি   

৩০ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চতুর্থ ধাপে আগামীকাল রবিবার কুমিল্লার মেঘনা ও তিতাস উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সঙ্গে দলের বিদ্রোহীর লড়াই হবে। আর হোমনায় একাধিক স্বতন্ত্র প্রার্থী থাকলেও আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী রেহেনা মজিদের জয় পেতে কোনো সমস্যা হবে না। দলীয় সূত্রে জানা গেছে, তিতাস উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহিনূর ইসলাম সোহেল শিকদার নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হওয়ার পর একক প্রার্থী হিসেবে তাঁর বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ের সম্ভাবনা তৈরি হয়। কিন্তু কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান পারভেজ হোসেন সরকার শেষ দিন মনোনয়নপত্র জমা দিলে নির্বাচনের চিত্র পাল্টে যায়। এদিকে মেঘনা উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল্লাহ রতন সিকদারের সঙ্গে বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও সাবেক উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আবদুস সালাম বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তাঁদের দুজনকে কেন্দ্র করে স্থানীয় আওয়ামী লীগ বর্তমানে দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছে। তবে দুজনই জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী।

হোমনা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল মজিদের স্ত্রী শিক্ষানুরাগী রেহেনা মজিদকে আওয়ামী লীগ একক প্রার্থী ঘোষণা করে। কিন্তু উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিদ্দিকুর রহমান আবুল মনোনয়নপত্র জমা দিলে নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে বলে মনে করেছিল ভোটাররা। তবে এক সপ্তাহ আগে ছিদ্দিকুর রহমান আবুল নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর পর রেহেনা মজিদের কেবল জয়ের অপেক্ষা। যদিও স্বতন্ত্র পদে নামমাত্র তিনজন প্রার্থী রয়েছেন। তবে তাঁদের কোনো প্রচার-প্রচারণা নেই বললেই চলে।

সহকারী রিটার্নিং অফিসার মোসা. রাসেদা আক্তার বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তা ছাড়া ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারে, সেই পরিবেশ নিশ্চিত করা হয়েছে।

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা