kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২০ জুন ২০১৯। ৬ আষাঢ় ১৪২৬। ১৬ শাওয়াল ১৪৪০

কালীগঞ্জে হামলার ঘটনায় গ্রেপ্তারের দাবিতে হরতাল অব্যাহত

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি   

৩০ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কালীগঞ্জে হামলার ঘটনায় গ্রেপ্তারের দাবিতে হরতাল অব্যাহত

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সহিংসতার জের ধরে চলছে অনির্দিষ্টকালের হরতাল। গতকাল ফুলতলা মোড়ে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের পিকেটিং। ছবি : কালের কণ্ঠ

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে হামলা চালিয়ে এক ইউপি চেয়ারম্যানসহ আটজনকে মারধর ও অফিস ভাঙচুরের ঘটনায় থানায় অভিযোগ করা হয়েছে। গতকাল দুপুরে আহত চেয়ারম্যান শেখ রিয়াজউদ্দিন ২০ জনের নামে এ মামলা করেন। মামলায় অজ্ঞাতপরিচয় আরো ২৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। এদিকে ইউপি চেয়ারম্যানের ওপর হামলার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবিতে গত বৃহস্পতিবার উপজেলা আওয়ামী লীগের ডাকা অনির্দিষ্টকালের হরতাল অব্যাহত রয়েছে। হরতালের কারণে গতকাল কালীগঞ্জ থেকে শ্যামনগর ও সাতক্ষীরাগামী কোনো বাস চলাচল করেনি।

কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমান জানান, বিগত উপজেলা নির্বাচনে বিষ্ণুপুর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ রিয়াজউদ্দিন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নূরুল হক সরদার, সাধারণ সম্পাদক নিরঞ্জন পাল বাচ্চুসহ অনেকেই নৌকার প্রার্থী আতাউর রহমানের পক্ষে কাজ করেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে নির্বাচনে জয়লাভ করার পর গত ২৫ মার্চ বিদ্রোহী প্রার্থী সাঈদ মেহেদী তাঁর কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে মুকুন্দ মধুসূদনপুর চৌমুহুনীর আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে ভাঙচুর চালায়। নিরঞ্জন পাল বাচ্চুকে হাত-পা ভেঙে দেওয়ার হুমকি দেয়। তা ছাড়া গত বুধবার রাতে সাতক্ষীরা থেকে বাড়ি ফেরার পথে কুশুলিয়ায় শেখ রিয়াজউদ্দিনসহ আটজনকে পিটিয়ে জখম করে। কালীগঞ্জ থানার ওসি হাসান হাফিজুর রহমান জানান, হামলার ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে।

 

মন্তব্য