kalerkantho

রবিবার। ১৬ জুন ২০১৯। ২ আষাঢ় ১৪২৬। ১২ শাওয়াল ১৪৪০

বাগেরহাটে ইভিএমে অনাগ্রহ ভোটারদের

বাগেরহাট প্রতিনিধি   

৩০ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চতুর্থ ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বাগেরহাট সদর উপজেলায় ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের মাধ্যমে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ করা হবে। উপজেলার ৯১টি ভোটকেন্দ্রের সব কটিতেই এই মেশিন ব্যবহার করা হবে। বাগেরহাটে এই প্রথম ভোটাররা ইভিএমের মাধ্যমে তাঁদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। তাই ভোটের দিন ভোটাররা যাতে সহজে ভোট দিতে পারেন—এ জন্য পরীক্ষামূলকভাবে ইভিএমে ভোটগ্রহণ (মগ ভোটিং) কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত বাগেরহাট সদর উপজেলার ৯১টি ভোটকেন্দ্রে চলে মগ ভোটিং। কিন্তু ভোট কর্মকর্তারা ইভিএম মেশিন নিয়ে কেন্দ্রে কেন্দ্রে অপেক্ষা করলেও এ কার্যক্রমে ভোটারদের খুব একটা সাড়া মেলেনি। বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক তপন কুমার বিশ্বাস, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ও পাঁচটি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার জহিরুল ইসলাম বিভিন্ন ভোটকেন্দ্র ঘুরে ঘুরে মগ ভোটিং প্রদর্শন করেন।

শুক্রবার দুপুরে বাগেরহাট শহরের আমলাপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়, দশানী যদুনাথ কলেজিয়েট স্কুল ও সদর উপজেলার কাড়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ ভোটকেন্দ্রে গিয়ে দেখা গেছে, ভোট কর্মকর্তারা ইভিএম মেশিনসহ প্রয়োজনীয় সরাঞ্জাম নিয়ে মগ ভোটিংয়ের জন্য অপেক্ষা করছেন। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ওই সব কেন্দ্রে দুই থেকে ৯ জন মগ ভোটার এসেছেন। নির্বাচন কমিশন মাইকিং ও ব্যাপক প্রচার চালিয়েও এই মগ ভোটিংয়ে ভোটারদের মধ্যে আগ্রহ তৈরি করতে পারেনি।

কাড়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ ভোটকেন্দ্রের এক ভোট কর্মকর্তা বলেন, ‘ইভিএম মেশিনসহ প্রয়োজনীয় সব সরঞ্জাম নিয়ে আমরা সকাল ৯টায় কেন্দ্রে আসি। সকাল ১০টা থেকে দুপুর সোয়া ১২টা পর্যন্ত মাত্র দুজন পুরুষ ভোটার মগ ভোটিংয়ে অংশ নিয়েছেন।’ তিনি মনে করেন, নির্বাচন নিয়ে ভোটারদের অনাগ্রহের কারণেই এমনটা হয়েছে।

বাগেরহাট শহরের আমলাপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার প্রতীক দাস জানান, শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত মাত্র পাঁচজন পুুরুষ ভোটার মগ ভোটিংয়ে অংশ নিয়েছে।

বাগেরহাটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ও পাঁচটি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের রিটানিং অফিসার জহিরুল ইসলাম জানান, ভোটারদের সুবিধার্থে এর আগে চার দিন বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে ইভিএম মেশিন প্রদর্শন করা হয়েছে।

বাগেরহাট জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও চারটি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের রিটানিং অফিসার ফারাজী বেনজীর আহম্মেদ জানান, ভোটারদের মগ ভোটিংয়ে অংশ নেওয়ার জন্য নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে নানাভাবে প্রচার-প্রচারণা চালানো হয়েছে।

নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, আগামী রবিবার বাগেরহাটের ৯টি উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে শুধু বাগেরহাট সদর উপজেলায় ইভিএমে ভোটগ্রহণ করা হবে। এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সরদার নাসির উদ্দিন ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে রিজিয়া পারভীন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এখন শুধু ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন হচ্ছে। এ পদে চারজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্ব্বিতা করছেন। তাঁরা হলেন খান রেজাউল ইসলাম (উড়োজাহাজ), আমিনুল ইসলাম (চশমা), সরদার আব্দুল কাদের (তালা) ও সরদার মাসুদুর রহমান (টিউবওয়েল)।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা