kalerkantho

শনিবার । ১ অক্টোবর ২০২২ । ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

শিশুর যে ৬ বিষয়ে ভুল করেন অভিভাবকরা

ইবরাহিম সুলতান   

৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ১২:২৪ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



শিশুর যে ৬ বিষয়ে ভুল করেন অভিভাবকরা

শিশুরা আমাদের সম্ভাবনাময় ভবিষ্যৎ। এ সময় তাদের যেভাবে গড়ে তোলা হয়, তারা সেভাবে গড়ে ওঠে। তাই মা-বাবার কর্তব্য হলো শিশুদের আদর-যত্নের পাশাপাশি সন্তান পালনে ইসলামের সঠিক বিধানগুলো যথাযথভাবে পালন করা। কারণ কিছু ক্ষেত্রে দেখা যায় অভিভাবকদের অবহেলা সন্তানদের ওপরও প্রভাব সৃষ্টি করে।

বিজ্ঞাপন

নিম্নে শিশুদের ক্ষেত্রে যেসব মাসআলার ভুল প্রয়োগ হয়ে থাকে এর কয়েকটি তুলে ধরা হলো।

►স্বর্ণ ও মেহেদির ব্যবহার

ইসলামে পুরুষদের জন্য স্বর্ণ ব্যবহার এবং চুল-দাড়ি ছাড়া অন্যান্য অঙ্গ-প্রত্যঙ্গে মেহেদি লাগানো নিষেধ। অনেকে মনে করেন, এ বিধান শুধু বড়দের জন্য। তাই শিশুদের উপহার বা নিজেদের শখের বানানো স্বর্ণের আংটি পরানো, মেহেদি ব্যবহার করাকে দোষের মনে করেন না। অথচ এ ধারণা সম্পূর্ণ ভুল; বরং ছেলেশিশুদের জন্যও স্বর্ণ ও মেহেদি ব্যবহার নিষেধ। (ফাতাওয়া শামি : ৬/৩৬২)

►কিবলার দিক করে পেসাব-পায়খানা

কিবলা বা কাবা শরিফের দিকে মুখ করে কিংবা পিঠ করে মলমূত্র ত্যাগ করার বিষয়ে হাদিস শরিফে নিষেধ এসেছে। কারণ এতে কিবলার অসম্মান করা হয়। ফিকহের কিতাবে একে মাকরুহ বলা হয়েছে। আর এ বিধান বড়-ছোট সবার জন্যই প্রযোজ্য। কিন্তু আমাদের দেশের অনেক অঞ্চলে এর ভুল প্রচলন রয়েছে। তারা মনে করেন, এ বিধান শুধু বড়দের জন্য। তাই শিশুদের মলমূত্র ত্যাগ করার সময় এ বিষয়টি লক্ষ রাখেন না। অথচ শরিয়তের এই বিধানের প্রতি আমাদের খেয়াল রাখা উচিত। অন্যথায় যিনি করাবেন তিনি অপরাধী হিসেবে সাব্যস্ত হবেন। (রদ্দুল মুহতার : ১/৬৫৫)

►শিশুদের পেসাব প্রসঙ্গ 

অনেকে মনে করেন, শিশুরা যত দিন দুধ পান করে তত দিন তার পেসাব অপবিত্র নয়। তাদের ধারণা, দুধ পানকালীন বাচ্চার প্রস্রাব বেশি দুর্গন্ধ হয় না। অথচ তাদের এ ধারণা ভুল। হাদিস শরিফে এ ধরনের শিশুর পেসাবকে অপবিত্রতার অন্তর্ভুক্ত করেছে। আর পেসাব দুর্গন্ধময় হোক বা না হোক সর্বাবস্থায় তা অপবিত্র। আর ছেলে-মেয়ে উভয়ের প্রস্রাবই অপবিত্র। অনেকে শুধু মেয়েবাচ্চার পেসাবকে অপবিত্র মনে করেন, তাদের এ ধারণাও সঠিক নয়। (বুখারি : ১/৩৫, রদ্দুল মুহতার : ১/৩১৮)

►দুধের শিশুর বমির বিধান

দুধের শিশুর বমির ব্যাপারে সঠিক মাসআলা হলো, শিশুর দুধবমির বিধান বড়দের বমির মতোই। যদি মুখভরে বমি হয় তাহলে তা নাপাক। চাই দুধ পানের পরপরই বমি করুক বা পরে, বমি দুর্গন্ধযুক্ত হোক বা না হোক। আর যদি মুখভরে না হয় তাহলে তা নাপাক নয়। (আদ্দুররুল মুখতার : ১/১৩৮)

►শিশুর পোশাক

শিশুর পোশাকের ব্যাপারে সঠিক নিয়ম হলো, যখন বাচ্চা দুই বছর বয়সে উপনীত হবে, তাকে সতর ঢাকা পরিমাণ পোশাক পরানো। এর কম বয়সে হালকা পোশাক পরালেই চলবে। তবে অধিক উত্তম মনে করে অনেকে দুধের বাচ্চাকেও পূর্ণ পোশাক দ্বারা আবৃত করেন। এটা ঠিক নয়। কারণ এর দ্বারা বাচ্চার কষ্ট হয়। তবে সর্বাবস্থায় বিজাতীয় পোশাক পরিধান করানো থেকে শিশুদের বিরত রাখা উচিত। (রদ্দুল মুহতার ১/৪০৭-৪০৮)

►শিশুকে গুনাহ থেকে বাঁচানো

প্রযুক্তির এই যুগে মানুষের হাতে হাতে গুনাহের উপকরণ রয়েছে। তাই ছোট শিশুরাও আজ গুনাহ থেকে বাঁচার সুযোগ নেই। কিন্তু আমাদের অনেক অভিভাবক শিশু বাচ্চাদের গুনাহের কাজে লিপ্ত হওয়ার পরও তাদের নিষেধ করতে দেখা যায় না। কারণ তারা মনে করেন, শিশুদের তো গুনাহ হয় না। অথচ জরুরি হচ্ছে, ছোটরা গুনাহ করলে বড়রা তাকে বাধা দেওয়া। তা ছাড়া একজন সচেতন অভিভাবকের কর্তব্য হচ্ছে, ছোট সময় থেকে নিজের বাচ্চাকে গুনাহমুক্ত জীবন গড়তে অভ্যস্ত করা।



সাতদিনের সেরা