kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আত্মমুগ্ধতা যেভাবে অহংকারী করে তোলে

মাইমুনা আক্তার   

২৯ আগস্ট, ২০২২ ০৯:৪২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আত্মমুগ্ধতা যেভাবে অহংকারী করে তোলে

বর্তমান সময়ে আমাদের সমাজে একটি ঈমানঘাতী মারাত্মক রোগ হলো আত্মমুগ্ধতা। এটি মানুষকে আল্লাহর রহমত থেকে দূরে সরিয়ে দেয়। দুনিয়ার জীবনে মহান আল্লাহ আমাদের অনেক নিয়ামত দিয়েছেন, আমাদের উচিত এগুলো নিয়ে আত্মমুগ্ধতায় না ভুগে আল্লাহর শুকরিয়া জ্ঞাপন করা। যারা আল্লাহপ্রদত্ত নিয়ামত পেয়ে শুকরিয়া না করে অহংকারের ঢেঁকুর দেয়, মহান আল্লাহ তাদের ভালোবাসেন না।

বিজ্ঞাপন

মহান আল্লাহ ইতিহাসের অন্যতম ধনী কারুনকেও অনেক সম্পদ দিয়েছিলেন, ক্ষমতা দিয়েছিলেন; কিন্তু তার দাম্ভিকতা তার সব কিছু কেড়ে নিয়েছে। তাকে ঈমানদাররা এ ব্যাপারে সতর্ক করেছিল; কিন্তু সে তার দাম্ভিকতা থেকে ফিরে আসেনি। এবং ধ্বংস হয়েছে। পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, ‘কারুন ছিল মুসার সমপ্রদায়ভুক্ত, বস্তুত সে তাদের প্রতি ঔদ্ধত্য প্রকাশ করেছিল। আমি তাকে দান করেছিলাম এমন ধনভাণ্ডার, যার চাবিগুলো বহন করা একদল বলবান লোকের পক্ষেও কষ্টসাধ্য ছিল। স্মরণ করো, তার সম্প্রদায় তাকে বলেছিল, দম্ভ করো না, নিশ্চয়ই আল্লাহ দাম্ভিকদের পছন্দ করেন না। ’ (সুরা কাসাস, আয়াত : ৭৬)

আত্মমুগ্ধতার ব্যাপারে বান্দাকে সতর্ক করতে মহান আল্লাহ এমন অনেক আয়াত অবতীর্ণ করেছেন। যেমন পবিত্র কোরআনের অন্য আয়াতে মহান আল্লাহ বলেন, ‘অতঃপর তাদের যা কিছু উপদেশ ও নসিহত করা হয়েছিল তা যখন তারা ভুলে গেল তখন আমি সুখ-শান্তির জন্য প্রতিটি বস্তুর দরজা উন্মুক্ত করে দিলাম। যখন তারা তাদের দানকৃত বস্তু লাভ করে খুব আনন্দিত ও উল্লসিত হলো তখন হঠাৎ একদিন আমি তাদের পাকড়াও করলাম, আর তারা সেই অবস্থায় নিরাশ হয়ে পড়ল। ’ (সুরা : আনআম, আয়াত : ৪৪)

এ আয়াতে বলা হয়েছে যে তাদের অবাধ্যতা যখন সীমাতিক্রম করতে থাকে, তখন তাদের একটি বিপজ্জনক পরীক্ষার সম্মুখীন করা হয়।

আত্মমুগ্ধতা অহংকারের নামান্তর। হাদিস শরিফে ইরশাদ হয়েছে, আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, একবার এক ব্যক্তি নবী (সা.) এর কাছে এলো। লোকটি ছিল খুবই সুন্দর। সে বলল, হে আল্লাহর রাসুল, আমি সৌন্দর্যকে ভালোবাসি। আপনি তো দেখতে পাচ্ছেন আমাকে সৌন্দর্যমণ্ডিত করা হয়েছে। এদিক দিয়ে কেউ আমার ওপর শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করুক তা আমি চাই না, এমনকি কেউ যদি বলে, আমার জুতার ফিতার চেয়ে তার ফিতাটা ভালো, সেটাও পছন্দ করি না। এরূপ করা কি অহংকার? তিনি (সা.) বলেন, না; বরং অহংকার হলো সত্যকে অবজ্ঞা করা এবং মানুষকে তুচ্ছ মনে করা। ’ (আবু দাউদ, হাদিস : ৪০৯২)

মহান আল্লাহ আমাদের আত্মমুগ্ধতা ও অহংকারের মতো ধ্বংসাত্মক অভ্যাস ত্যাগ করার তাওফিক দান করুন।



সাতদিনের সেরা