kalerkantho

বুধবার । ৬ ফাল্গুন ১৪২৬ । ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪১

মোবাইলে সালাম আদান-প্রদান প্রসঙ্গে...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ জানুয়ারি, ২০২০ ০৮:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মোবাইলে সালাম আদান-প্রদান প্রসঙ্গে...

মোবাইল ফোনে কে আগে সালাম দেবে?
হাদিসে এসেছে, ‘কথা বলার আগে সালাম।’ তাই যে আগে কথা শুরু করবে, সে-ই সালাম দেবে। সাধারণত ফোন রিসিভকারীই আগে কথা বলে। তাই সে-ই আগে সালাম দেবে। অবশ্য কখনো রিসিভকারী যদি রিসিভ করে কথা না বলে বা কোনো কারণে কলকারী কথা শুনতে না পায় বা বুঝতে না পারে তখন কলকারীও সালামের মাধ্যমে মনোযোগ আকর্ষণ করতে পারে।

অপরিচিত নারীর সঙ্গে সালাম আদান-প্রদান
গাইরে মাহরাম নারীর সঙ্গে প্রয়োজনে পর্দায় থেকে কথা বলা জায়েজ; যদি ফেতনার আশঙ্কা না থাকে। তাই মোবাইল ফোনে নারীদের সঙ্গে কথা বলতে হলে সালাম দিয়েই কথা শুরু করবে। যে আগে কথা বলবে সে সালাম দেবে। অনেক সময় যার নম্বরে কল করা হচ্ছে তিনি যদি বড় ও সম্মানী ব্যক্তি হন তখন তিনি সালাম দিলে এ সালামের উত্তর দেওয়া হয় না, বরং কলকারী উল্টো তাঁকে সালাম দেয়। এটি ভুল নিয়ম। তাই বড় ও সম্মানী ব্যক্তি রিসিভ করে সালাম দিলে অপর প্রান্ত থেকে এর শুধু উত্তরই দেবে। পাল্টা সালাম দেবে না। (সুনানে তিরমিজি : ২/৯৯)

উভয় পক্ষের সালাম মুখোমুখি হলে
যদি রিসিভকারী ও কলকারী উভয় একই সঙ্গে সালাম বলে, তবে প্রত্যেককেই উত্তর দিতে হবে। কিন্তু কেউ যদি আগে সালাম দেয়, তবে অপর পক্ষের জন্য উত্তর দেওয়া নির্ধারিত। সে ভুলে বা ইচ্ছাকৃত পাল্টা সালাম দিলে দ্বিতীয় ব্যক্তির সালাম উত্তর হিসেবে গণ্য হবে। (ফাতাওয়ায়ে হিন্দিয়া : ৫/৩২৫; রদ্দুল মুহতার : ৬/৪৯৬; শরহুল মুহাজ্জাব : ৪/৪৬৩)

মুফতি তাজুল ইসলাম ও মাওলানা সাখাওয়াত উল্লাহর লেখা থেকে

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা