kalerkantho

সোমবার । ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১১ রবিউস সানি ১৪৪১     

আত্মসমর্পণের পর বিএনপি নেতা রিপন কারাগারে

বিশেষ প্রতিনিধি   

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০২:১৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আত্মসমর্পণের পর বিএনপি নেতা রিপন কারাগারে

পুলিশের কর্তব্যকাজে বাধা, ভাঙচুর ও মারামারি তিন মামলায় আত্মসমর্পণের পর বিএনপির বিশেষ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গতকাল সোমবার ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন জানিয়েছিলেন তিনি। শুনানি শেষে বিচারক কে এম ইমরুল কায়েশ জামিন নামঞ্জুর করে তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

গতকাল তিন মামলায় পৃথক আদেশ দেওয়ার পর রিপনকে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। ওই আদালতের অতিরিক্ত পিপি তাপস কুমার পাল কালের কণ্ঠকে বলেন, তিন মামলায় আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন রিপন। কিন্তু আদালত জামিন না দিয়ে তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। রিপনের আইনজীবীরা জানান, এই আদেশের বিরুদ্ধে তাঁরা উচ্চ আদালতে যাবেন।

মামলাগুলোর এজাহারে বলা হয়েছে, গত বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি রমনা এলাকায় বিএনপির এক-দেড় হাজার নেতাকর্মী পুলিশের কাজে বাধা দেয়। তারা লাঠিসোঁটা, লোহার রড ও ইটপাটকেল দিয়ে রাস্তায় গাড়ি ভাঙচুর করে। এ ঘটনায় পুলিশ রমনা থানায় দণ্ডবিধি ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে তিনটি মামলা করে। প্রত্যেক মামলার এজাহারে রিপনের নাম রয়েছে।

উল্লেখ্য, গত বছর ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন। ওই দিন রাজধানীর রমনাসহ অন্যান্য এলাকায় বিএনপির নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল করে। ওই মিছিল থেকে রাস্তায় গাড়ি ভাঙচুর করা হয়। পুলিশ বাধা দিলে তাদের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনার পর মামলাগুলো করা হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা