kalerkantho

শুক্রবার । ২৩ আগস্ট ২০১৯। ৮ ভাদ্র ১৪২৬। ২১ জিলহজ ১৪৪০

রাষ্ট্র আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় ব্যর্থ : সৈয়দ আবুল মকসুদ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৭ জুলাই, ২০১৪ ১৩:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাষ্ট্র আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় ব্যর্থ : সৈয়দ আবুল মকসুদ

খাগড়াছড়ির দীঘিনালার বাবুছড়ায় ৫১ বিজিবি ক্যাম্প স্থাপনে সরকার তাঁর সাংবিধানিক ও নৈতিক দায়িত্ব লঙ্ঘন করেছে। পাশাপাশি রাঙামাটিতে সিএইচটি (পার্বত্য চট্টগ্রাম) কমিশনের ওপর হামলায় ঘটনার মাধ্যমে বোঝা যায় রাষ্ট্র আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় ব্যর্থ হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিশিষ্ট কলাম লেখক সৈয়দ আবুল মকসুদ। আজ সোমবার সকালে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনের গোলটেবিল কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সৈয়দ আবুল মকসুদ এসব কথা বলেন। এর আগে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন রাশেদ রাইন। গত মাসের ২৭ তারিখে খাগড়াছড়ির ৪ নম্বর দীঘিনালা ইউনিয়নের ৫১ নম্বর মৌজায় বিজিবি সদর দপ্তর নির্মাণ ও আদিবাসী পরিবার উচ্ছেদের ঘটনায় সরেজমিনে পরিদর্শন শেষে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে নাগরিক কমিটি।
সংবাদ সম্মেলনে সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেছেন, খাগড়াছড়ির দীঘিনালার বাবুছড়ায় ৫১ বিজিবি ক্যাম্প স্থাপন করতে গিয়ে দুইটি আদিবাসী গ্রাম উচ্ছেদ করার ঘটনা অত্যন্ত অমানবিক। ওই ক্যাম্প স্থাপনের জন্য জনমত যাচাই করা হয়নি। এটি সরকারের সাংবিধানিক ও নৈতিক দায়িত্ব ছিল। তিনি আরও বলেন, রাঙামাটিতে সিএইচটি (পার্বত্য চট্টগ্রাম) কমিশনের ওপর হামলা হচ্ছে অ্যাটেম্পট টু মার্ডার। এ ঘটনায় দ্রুত দোষীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের আওতায় আনতে হবে। অন্যথা রাষ্ট্র আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় ব্যর্থ বলেই ধরে নিতে হবে।
দীঘিনালা পরিদর্শন দলের নেতা ও আদিবাসী গবেষক পাভেল পার্থ বলেন, আমরা সরকারি নথি থেকে জেনেছি, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বাবুছড়া ইউনিয়নে বিজিবি ক্যাম্প করার অনুমতি দিয়েছে, কিন্তু ক্যাম্প নির্মিত হচ্ছে দীঘিনালা ইউনিয়নে। আর সরেজমিনে গিয়ে দেখেছি, সেখানে ওই ক্যাম্প স্থাপনের জন্য উচ্ছেদ করা হয়েছে শশীমোহন ও যত্নমোহন কারবারী পাড়া নামের দুইটি প্রাচীন আদিবাসী গ্রাম। সেখানকার ২১টি পরিবার এখন পাশের একটি স্কুলে আশ্রয় নিয়েছেন।
আদিবাসী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জীব দ্রং বলেন, সিএইচটি কমিশনের মতো আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থার ওপর হামলার ঘটনাই ইশারা করে যে, পাহাড়ে আদিবাসীদের অবস্থান কতটুকু নাজুক। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আদিবাসী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রবীন্দ্রনাথ সরেন, আইইডি-এর নির্বাহী পরিচালক নুমান আহম্মদ খান, এএলআরডির নির্বাহী পরিচালক শামসুল হুদা প্রমুখ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা